পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/২৩৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ষষ্ঠ অধ্যায়। 3సి( হরিশপুরেই রহিলেন। র্তাহার সঙ্গে অামাদের অন্যান্ত সঙ্গিগণও রহিল। জামরা মালকাওঁীর (মুকুন্দদেব ) সহিত সাক্ষণতার্থে যাত্রা করিলাম। পশ্চাদগামী সঙ্গীদের বলিয়া গেলাম,পথে যাহা কিছু ঘটিবে, তাহদের সংবাদ পাঠান হইবে । ইতোমধ্যে মিঃ কলিও আরোগ্যলাভ করিবেন। আমাদের নিকট হইতে সংবাদ পাইলে তাহারা গন্তব্য পথাভিমুখী হইবেন, ইহাই স্থির রহিল । আমরা নানাবিধ সুগন্ধি মসলা, স্বর্ণ, রৌপ্য ও বস্ত্র প্রভৃতি বাণিজ্য দ্রব্যে, আমাদের নৌকা বোঝাই করিলাম। আমরা যে সকল সুগন্ধি মসলা সঙ্গে লইয়াছিলাম, তাহ এ অঞ্চলে পাওয়া যায় না। নদীপথ শেষ হইবার পর, আমরা মাল-পত্রগুলি গরুর গাড়ীতে বোঝাই করিলাম। সন্ধ্যার সময় আমরা গন্তব্যস্থানে উপস্থিত হইলাম। ২৮এ এপ্রিল। প্রভাত হইয়াছে। প্রভাতকালেই—সেই নগরের শাসনকৰ্ত্ত। অামাদের শিবিরে আসিলেন । আমাদের প্রধানের পরিচয় পাইয়া, তিনি তাহার যথেষ্ট সমাদর করিলেন । অভিবাদন ও প্রত্যভিবাদনের বিনিময় হইল । তিনি আমাদের কথাবাৰ্ত্তায় অতিশয় সন্তুষ্ট হইয়t বলিলেন—“আমার ক্ষমতায় যতদূর সম্ভব, আপনাদের উপকার করিব।” তিনি বাস্তবিকই অতি ভদ্র । যাহা বলিলেন—তাহাই করিলেন । তিনি আমাদের আরোহণের জন্ত কয়েকট অশ্ব পাঠাইয়া দিলেন। আমাদের হুকুম তামিল করিবার জন্য, কয়েকজন কুলি পাঠাইয়া দিলেন । কারণ এই সহরে, আমাদের দ্রব্যাদি—লোকজনের দ্বারাই বহন করাইতে হইবে । গাড়ীর আর তেমন সুবিধা হইবে না । আমরা গন্তব্যস্থানে যাত্ৰা করিলাম । শাসনকৰ্ত্ত আমাদের নিকট হইতে বিদায় লইলেন। র্তাহার লোকজনেরা আমাদের সঙ্গে সঙ্গে চলিল। আমরা সে দেশের পথ ঘাট কিছুই জানি না। কাজেই পথ ঘাট দেখাইয়া দিবার জন্ত এবং রাজার প্রদত্ত অশ্বগুলি ফিরাইয়া আনিবার জন্য, শাসনকৰ্ত্তার লোকেরা আমাদের সঙ্গে সঙ্গে চলিল । বেলা এগারটা বারটার সময় অামরা পুনরায় যাত্রা করিলাম। এপ্রিল মাল, ভয়ানক গরম । চারিদিকে যেন অণগুণের হল কী ছুটিতেছে । আমরা কিয়দ র অগ্রসর হইয়া, একস্থানে বিশ্রাম করিতে লাগিলাম। সে প্রচও গরমের মধ্যে অগ্রসর হওয়া অসম্ভব । তিন চারি ঘণ্টা বিশ্রামের পর অপরাহ আসিল। এখান হইতে আমরা "হরপ্পুরাপুরের" (হরিহরপুর )