পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/২৬২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২২৪ কলিকাতা সেকালের ও একালের । রোপিত হইয়াছিল। যেমন অতি ক্ষুদ্র বীজ হইতে কালে প্ৰকাত্তশাল পল্লবময় বিরাট বটবৃক্ষের উদ্ভব হয়, সেইরূপ হুগলীর বাণিজ্যকুঠারূপ ক্ষুদ্রীয় হইতে, এই বিশাল ব্রিটিশ শাসনাধীন ভারত-সাম্রাজ্যের স্বষ্টি হইয়াছে। যে ভারতে ইক্ষুকু, দিলীপ, রামচন্দ্র, যুধিষ্ঠির, অশোক, চন্দ্রগুপ্ত, পৃথ্বীরাঙ্ক ইত্যাদি হিন্দুনরপতিগণ এবং আকবর,জাহাঙ্গীর,সাহজাহান,ঔরঙ্গজেব প্রভৃতি মোগলসম্রাটগণ একছত্র আধিপত্য করিয়া গিয়াছেন, সেই জনাই আজ আমরা সমগ্র ভারতের রাজচক্রবর্তী সম্রাটরূপে, আমাদের সর্ব জনপ্রিয় সম্রাট পঞ্চম জর্জ ও সামান্ত্রী মেরীকে ভারতের ভাগ্যবিধাত ও রক্ষণকৰ্ত্তারূপে দেখিতে পাইতেছি। এ প্রসঙ্গে আমরা আড়াই শত বৎসরের পূৰ্ব্বের কথা আলোচনা করিতেছি। এই সুদীর্ঘকাল মধ্যে পরিশ্রমী,অধ্যবসায়ী, কৰ্ম্মবীর, ইংরাজ জাতির মায়াময় করম্পর্শে, ভীষণ জঙ্গলাবৃত সুতানুট, গোবিন্দপুর ও কলিকাতার জঙ্গলের মধ্য হইতে,বর্তমান প্রাসাদময়ী, বিছাভালোকোজ্জ্বলিত, প্রশস্ত রাজবক্স পূর্ণ, বিশাল জনসংঘ সম্বলিত, শকট ঘৰ্বর নিনাদিত, বর্তমান মহানগরী কলিকাতার উদ্ভব হইয়াছে। সম্রাট ঔরঙ্গজেবের আমলে, ইংরাজগণ কিরূপ অবস্থায় এদেশে অবস্থান করিতেছিলেন, এখন আমরা সেই কথাই বলিব । বঙ্গের এই বাণিজ্য • ব্যবসা রক্ষা করিতে র্তাহীদের যে কত কষ্ট,কত পরিশ্রম ও ত্যাগ স্বীকার এবং নিৰ্য্যাতন সহা করিতে হইয়াছিল—তাহাই বলিব । সম্রাট ঔরঙ্গজেবের আমলে, বঙ্গে ইংরাজবাণিজ্য চরম উন্নতির মুখে আসিয়াছিল। নবাব সায়েস্তা খণর অনুকম্পায়, ইংরাজেরা ঠাহীদের বাণিজ্য সম্বন্ধীয় বাধাবিপত্তি হইতে অনেকটা মুক্তিলাভ করিয়াছিলেন। তখন বঙ্গদেশের ফ্যাক্টরী গুলিতে দেড়লক্ষ পাউণ্ড খাটিতেছিল। সৰ্ব্ব প্রথমে, মোটে পাঁচশত টাকা লইয়া, হুগলী ফ্যাক্টরীর প্রথম বাণিজ্য আরম্ভ হয়, শেষ তাহা দেড়লক্ষ পাউণ্ডে দাড়াইয়াছিল। ধরিতে গেলে, বঙ্গদেশে হুগলীর বাণিজ্য-কুীই ইংরাজের ভবিষ্যৎ সৌভাগ্য সুচনা করিয়া দেয় । -- কিন্তু বাণিজ্যের অসম্ভব উন্নতি সংসাধিত হইলেও হুগলী সম্পূর্ণ নিরাপদ ছিল না। সমুদ্রবক্ষেই ইংরাজের প্রভাব ও কাৰ্য্যকুশলতা । জাহাজ লইয়াই ইংরাজের শক্তি। এ শক্তি হুগলীতে বিকাশ করিবার কোন উপায় ছিল না । গঙ্গাসঙ্গম স্থানও হুগলী হইতে অনেক দূরে । আজকাল ভাগিরথীর যে অবস্থা হইয়াছে, তখন তাহা ছিল না। সেই সুদূর অতীতে, রণোন্মাদিনী মূৰ্ত্তিতে দুই কুল ভাঙ্গিয়া, ভাগীরথী মহাবেগে সাগর সঙ্গমের দিকে ছুটিতেন। নদীর নানা