পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/২৭৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অষ্টম অধ্যায়। ૨૭૯ হেজেসের উপর কড়া হুকুম ছিল—“বাঙ্গালার কুঠার শাসন ও স্ববন্দোবস্ত করিয়া, “ইণ্টারলোপারদের" সমূলে ধ্বংসসাধন করিবে।” হেজেস ১৬৮২ খ্ৰী: অব্দের ২৮জানুয়ারী বাঙ্গলায় আসিবার জন্য “ডিফেন্স” জাহাজে আরোহণ করেন। এদিকে ২০এ ফেব্রুয়ারী তারিখে, ইন্টারলোপারদিগের সর্দার পিটও "ক্রাউস” নামক এক জাহাজ আরোহণে বঙ্গদেশের দিকে যাত্রা করেন। বিলাতের কর্তৃপক্ষদের আদেশ ছিল—“বাঙ্গালায় পৌছিয়াই হুগলীকুঠীর অধ্যক্ষ ভিনসেন্টকে বন্দী করিবে” । এইজন্য হেজেসের সস্থিত কয়েকজন গোরসৈনিক দেওয়া হয় । বলা বাহুল্য, হেজেস তাহার বিলাতের প্রভুদের আদেশপালন করিতে পারেন নাই । তাহার কারণ এই, পিট যে জাহাজে আসিতেছিলেন, তাহ অপেক্ষাকৃত ক্ষুদ্রকায় । কাজেই হেজেসের পরে যাত্রা করিয়াও, পিট তাহার এগার দিন আগে বালেশ্বরে পৌছিল ও তথায় প্রচার করিয়া দিল, বিলাতের ইষ্ট-ইণ্ডিয়া-কেম্পিানী দেউলিয়া হইতে বসিয়াছেন । এজন্য এক নূতন কোম্পানী গঠিত হইয়াছে। ‘আমিই তাহার এজেণ্ট ।* হেজেস হুগলীতে আসিতেছেন শুনিয়া, হুগলীর কুঠীর অধ্যক্ষ ভিনসেন্ট দিলেন–র্তাহারও দিন শেষ হইয়া আসিয়াছে। তিনি হেজেসকে চুচুঁড়ায় ডচ দিগের বাগানে মহা সমারোহে সম্বৰ্দ্ধন করিলেন । আত্মরক্ষার জন্য, তিনি ৩৫জন বন্দুকধারী পটুগীজ, পঞ্চাশজন রাজপুত ও আরও কয়েকজন দেশী সৈন্য লইয়া উপস্থিত হন । হেজেস তাঙ্গকে কোম্পানীর আদেশপত্র দেখাইলেন। ভিনসেন্ট বলিলেন—“ইহার উত্তর আমি বিলাতে গিয়া দিব ।” - এদিকে পিটও এক কাণ্ড করিয়া বসিল । সে অগ্রবর্তী হইয়া হুগলীতে উপস্থিত হইল। তাহার সঙ্গেও লাল-কুৰ্ত্তী-ওয়ালা পটুগীজ ও দেশীয় সেন । সঙ্গে তিনখানি বাণিজ্য-জাহাজ । মহাসমারোহে তীরে নামিয়া, পিট চুঁচুড়ায় বাস করিতে লাগিল। এইস্থানে কোম্পানীর কৰ্ম্মচারী ভিনসেন্টও তাহার সঙ্গে আসিয়া জুটিলেন । ডচ ও বাঙ্গালী ব্যবসায়ীদের সাহায্যে, পিট চুচুড়ায় এক বাণিজ্যাগার নিৰ্ম্মাণ করিল এবং হুগলীর শাসনকৰ্ত্তাকে হাত করিরা ইয়া বেশ জোরের সহিত ব্যবসা চালাইতে লাগিল। নিজেকে নূতন এই পিট বড় যে সে লোক নছেন। বিলাতের ভবিষ্য২ যুগের রাক্তমন্ত্রী স্বনামগ্যাত ধনিয়ম পিট, ইহারই বংশধর। sledges Diary. i. 52. 130.