পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/২৯৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দশম অধ্যায় । ২৬৫ কণ্ডা। নিকলসনকে সহসা কতকগুলি জাহাজ সমেত উপস্থিত হইতে দেখিয়া, কাশেম সাহেব হিজলী ছাড়িয়া পলায়ন করিলেন । মোগলের কামান, রসদ ও হিজলী সহর, নিকলসনের দখলে আসিল । ফেব্রুয়ারি মাসে, চার্ণক হিজলীতে উপস্থিত হন । হিজলী তখনকার হিসাবে, একটা ছোটখাট, জনপূর্ণ সহর । অপৰ্য্যাপ্ত শস্য, প্রচুর গৃহপালিত পশু পক্ষী—এখানে না আছে কি ? চার্ণক, র্তাহার সমস্ত সৈন্যবল সহরে একত্রিত করিয়া বেশ জাকাইয়া বসিলেন। ধরিতে গেলে—তিনিই তখন সমগ্র হিজলী সহরের মালিক । হিজলী অধিকার করিয়া—চার্ণক বুঝিলেন, এই সছর অতি সহজেই উহাদের হস্তগত হইয়াছে বটে, কিন্তু রক্ষার সুবন্দোবস্ত না করিলে ইহা অতি সহজেই হস্ত বহিভূত হইতে পারে । একদিকে কাউখালি নদী, অন্যদিকে রসুলপুর নদী—তাহার উপর ভাগিরথীর মোহানা ত আছেই। ধরিতে গেলে, হিজলী একটী ক্ষুদ্র দ্বীপ মাত্র। বিপদ উপস্থিত হইলে বা প্রয়োজন ঘটিলে, যাহাতে এই সমস্ত নদীমুখ হইতে বাহির হইতে পারা যায়, তজ্জন্ত নদীমুখে অসংখ্য ছোটবড় নৌকা রাখা হইল । নগরের অধিবাসীরা যাহাতে হিজলী হইতে বাহির হইয়া পর পারে না যাইতে পারে, তজ্জন্ত নদীর চারিদিকে দিবারাত্রব্যাপী পাহারা রহিল । হিজলী—রক্ষার মুবন্দোবস্তের সঙ্গে সঙ্গেই, চার্ণক, চেষ্টা করিয়া বালেশ্বর দখল করিলেন । বালেশ্বরে ও তপন ইংরাজ-ফ্যাক্টারী ছিল । মোগলের দুর্গ ও তোপখানা ছিল । অতি সহজেই এই দুর্গ ও তোপখানা ইংরাজের দখলে আসিল । দুইদিন ধরিয়া বালেশ্বর লুঠ হইল। এই সময়ে দুইখানি মোগল-জাহাজে সাহােজাদা ও নবাব সায়েস্তার্থণর জন্ত, চরিট হস্তী আসিতেছিল। ইংরাজের মোগলের এই জাহাজখানি লুঠ করিয়া, হাতীগুলি দখল করিলেন । এই সব কণও করিয়া ইংরাজেরা, যখন বুঝিলেন—বালেস্বরের অধিবাসীদের, ইংরাজের শৌর্য্যবীৰ্য্য ও প্রভাব সম্যকরূপে হৃদয়ঙ্গম করান হইয়াছে, তখন র্তাহারা বালেশ্বর ত্যাগের বন্দোবস্ত করিলেন । একে একে, চার্ণক অনেকগুলি অসমসাহসিক কাজ করিয়া ফেলিলেন ।

  • Hunter's Statistical Account of Bengal. III. (93.

Hedge's Diary, 1, 68. 172. 175. Հ)8