পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৩১৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ಳ್ದಿ ಸ್ಧಿ o s * | একাদশ অধ্যায়। তুতালুটা প্রভৃতি স্থানের জঙ্গলময় অবস্থা–চারিদিকে বাদাভূমি—বাঘ ও ডাকাতের ভয়—সলিখা ও বেতে tড় প্রভুতি গ্রামের কথ}--বেতাইচণ্ডী--মনসার ভাসান গ্রন্থে তৎকালীন স্থান সমূহের নামেপ্লেগ-ডি ব্যারোজ ও সিজার ফ্রেডরিক প্রভৃতি ইউরোপীয়ানগণ কর্তৃক লিগিত-প্রাচীন জনস্তান সমুহের বিবরণ— চাটুপী ও সাতগার বন্দর--সপ্তগ্রামের উন্নত অবস্থা—ত্রিবেণী সঙ্গমের মেল-বেগেড় ও গার্ডেনরিচ-বেতোড়ের হাট-বেতোড়ের হাটে পটুগীজ বাণিজ্য—সালিগ ও চিৎপুরের ক্রমোন্নতি-কুচিনান ও কলিকতা-- সপ্তগ্রামের অধঃপতন—সপ্তগ্রামবাসী শেঠ ও বম্বকদেব গোবিন্দপুরে আগমন— মুকুন্দরাম শেঠ ও তাঙ্গার প্রপৌত্র গোপীমোঙ্গন শেঠের কথা—শেঠ ও বসুকদের সংক্ষিপ্ত ইতিবৃত্ত—শেঠদিগের গৃহদেবতা গোবিন্যজী—ধনস্তথাস বা গোবিন্দপুর—কালীঘাটের হালদার বংশ ও কলিকাতার ঠাকর গোষ্ঠীর আদি পুরুষদের গোবিন্দপুরে বাস-পুরাতন ফোর্ট উইলিয়াম দুর্ণ—হতালুটার প্রাচীনত্ব নির্ণয়—বসবগণ কর্তৃক স্ততার ব্যবসায়-ঢাকাই মসলিন—ঢাকাই মসলিন বস্ত্রসম্বন্ধে প্রসিদ্ধ ভ্ৰমণকারী টtভারনিয়ারের বিবরণ-শেঠ ও বসাকদের বাণিজ্য জষ্ঠ স্বতীপুটার উন্নতি—শেঠ বসাকদের গৃহ-দেবত গোবিন্দজী কোম্পানী কর্তৃক গোবিন্দপুর খাস দখলের পর-শেঠদিগের বড়বাজারে গমন বড়বাজারে তাহদের প্রতিষ্ঠিত গোবিন্দজীউর মন্দির—বৈষ্ণবচরণ শেঠ সম্বন্ধে কিম্বদন্তী—“লাগে টকা দেবে গৌরী সেন” প্রবাদের উৎপত্তি—বৈষ্ণবচরণের ধর্ক্সজ্ঞান—প্রাচীন কলিকাতার অবস্থা—ঙ্গাদিন্টনের উক্তি—শেঠ ও বসাকের বাণিজ্য—বেতোড় হাটের অধঃপতন—সুতালুট হাটের উন্নতি—পিপলে বা পীরপল্লী--কাটগঙ্গ—কলিকতায় পটুগীজ কুঠী—অণুগুদাম—আরমানীদের কলিকাতায় আগমন-অরিমানীদের কলিকাতায় বসবাস করাইবার জন্য জব চার্ণকের চেষ্টা । কলিকাতায় ডচ বণিকদের কুঠী—বাকশাল ঘাট—বাকশাল শব্দের ব্যুৎপত্তি—কালীঘাটের হালদারদের গোবিন্দপুরে বসবাস-নূতন ও পুরাতন ইষ্ট-ইণ্ডিয়া কোম্পানীর সম্মিলনে কলিকাতার জনসংখ্যা বৃদ্ধি ও উন্নতি সাঁইত্রিশ খৃঃ অব্দের ঝড় ও ভূমিকম্প—তাহাতে প্রাচীন কলিকাতার ধ্বংশ সাধন—সেই ভয়ানক ঝড়ের সমসাময়িক বৃত্তান্ত । ইংরাজ আগমনের পূর্বে ও পরে প্রাচীন কলিকাতার অবস্থা । আমরা এ পর্য্যন্ত ইষ্ট-ইণ্ডিয়া কোম্পানীর প্রতিষ্ঠা ও কাৰ্য্য-প্রণালী মন্ধে যাহা কিছু বলিয়াছি, তাহ হইতে পাঠক বুঝিয়াছেন, কেবল মাত্র