পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৩১৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


একাদশ অধ্যায় । ミvび উৎপাতে এ স্থানের বাণিজ্য-প্রাধান্ত কমিয়া আসে । চট্টগ্রামের নিয়ে, বাঙ্গলার মধ্যে শ্রেষ্ঠ বন্দর ছিল—সপ্তগ্রাম। সপ্তগ্রামের নিকটেই রিবেণী সঙ্গমে, তখন অনেক লোকে শুভ-পৰ্ব্বদিনে ত্রিবেণীর ঘাটে গঙ্গাস্বান করিতে আসিত । সপ্তগ্রামের হাট-বাজার চত্বর ও গঞ্জ প্রভৃতিতে, ভারতের উত্তরপশ্চিম প্রদেশের অনেক সুপ্রসিদ্ধ বাণিজ্য-প্রধান স্থান হইতে, দ্রব্যাদি বিক্রয়ার্থে আসিত । তখন বেতোড় পটুগীজদের একটা প্রধান বাণিজ্য স্থান ছিল। পটুগীজ জাহাজগুলি—এই স্থানের অদূরে, বর্তমান গার্ডেনরিচে নজর করিত। বড় বড় জাহাজ, নদীর শাখা সমূহে প্রবেশ করিতে পারিত না । বেট, বজরা ও ভড় প্রভৃতি, এই বেতো েই হইতে মালপত্র লইয়া প্রথম প্রভৃতি স্থান হইয়া বরানগর . . . আগরপাড়া, সপ্তগ্রাম প্রভৃতি স্থানে যাইত। বেতোড়ে কোন নির্দিষ্ট হাট ছিল না। পটুগীজের প্রতিবৎসর যখন এইস্থানে অসিত, সেই সময়ে হাটের জন্য তাহারাই এ দেশের জনমজুর দিয়া, কতকগুলি হাটচলা প্রস্তুত করাইয়া লইত । সামক্লিক ক্রয়—বিক্রয়ের কার্য্য শেষ হইয়া গেলে—বড় বড় জাহাজে তাহীদের ক্রীত মালপত্রগুলি তুলিয়। লইয়া, সমুদ্র-পথ দিয়া তৎকালের পটুগীজদের প্রধান বাণিজ্যস্থান গোয়ায় পৌছিত। পটুগীজেরা এই সময়ে তাহদের DSBBBBB BB BBB BB BBBBS BBBS BBBBS BBB S BB জনসংকুল হাট, পরিণামে কেবল দগ্নবাশ হোগলা ও খড়ের ভস্মরণশিতে পরিণত হইয় তাহীদের আগমন-চিহ্ন প্রকাশ করিত। আলাউদিনের বাটীর মন্ত, বৎসরের মধ্যে দুই একবার সহসা এই স্থান, ক্ষুদ্র নগরের আকার ধারণ করত, আবার পটুগীজদের প্রস্থানের সঙ্গে সঙ্গে, তাহা জনশূন্ত ধ্বংসাবশেষে পরিণত হইত। * যাহা হউক—বেতোড়ের এই বাণিজ্য জন্ত, চিৎপুর সালকিয়া প্রভৃতি গুণময় স্থানসমূহ, ধীরে ধীরে জনপূর্ণ হইতেছিল। কুচিনান ও কলিকাতার টিার তীরে নৌকাদি বাধিবার জন্য কয়েকট ঘাট ছিল, একথাও শুনিতে পাওয়৷ সায় । " নিয়তির শক্তি অতিক্রম করিতে কেহই পারে না । কালের শ্ৰেণত দ্ধি করিতে কেহই সক্ষম নহে। লক্ষ্মীশ্রীপূর্ণ, জনসংকুল সপ্তগ্রাম, স্বরস্বতী ই সাওয়ায়, এই নিয়তি শক্তিবশে ধ্বংসের মূখে অগ্রসর হইতে লাগিল।

  • Cesar Fredrick in Hakluyt, Edition of 1598. 1,230