পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৩৭৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


স্ত্রয়োদশ অধ্যায়। రిలిన রার করিল। ইহার ফলে সমস্ত পশ্চিম বঙ্গব্যাপী একটা দারুণ হাহাকার গুলি। প্রজাগণ বিদ্রোহীদের অত্যাচারে ও লুন্ঠনের জালায় জর্জরিত ভূইয়া নানাদিকে পলাইতে লাগিল । রহিম-সার যথেষ্ট আয় এবং পরাক্রমও বেশী। ইষ্ট-ইণ্ডিল কোম্পানীর পুরাতন কাগজপত্র হইতে জানা যায়,যে তাহার বার্ষিক আয় ষাট লক্ষ টাকা এবং পদাতিক সৈন্তের সংখ্যা বার হাজার ও অশ্বারোহী সৈন্য সংখ্যা ত্রিশ মজার ছিল। রিয়াজের বৃত্তাস্তানুসারে, রহিম-সা বৰ্দ্ধমান হইতে রাজমহল পর্যান্ত সমস্ত ভূভাগ অধিকার করেন। প্রসিদ্ধ ঐতিহাসিক ইয়ার্ট সাহেবের দুতে, রহিম-সা মেদিনীপুর হইতে বৰ্দ্ধমান পৰ্য্যস্ত স্থানগুলি অধিকার করেন উল্লিখিত আছে ।* দেশের দণ্ড-মুণ্ডের মালিক লিনি, প্রজার রক্ষা করিবার ভার র্যাহার হস্তে স্থ, যিনি এই বিশাল বঙ্গবিহার উড়িষ্যায় মোগল সম্রাটের প্রতিনিধি—সেই নবাব ইব্রাহিম খা—তখনও নিশ্চেষ্ট। জেলার পর জেলা, নগরের পর না, পরগণার পর পরগণা, যে বিদ্রোহীদের হস্তগত হইতেছে-আর্জের আৰ্ত্তনাদে দেশ প্রতিধ্বনিত হইতেছে, তাহার রক্ষাধীনে ন্যস্ত, প্রজাকুলের সৰ্ব্বস্ব লুষ্ঠিত হইতেছে, চারিদিকে দারুণ হাহাকার—তবু তিনি মুখ নিদায় নিমগ্ন। তাঙ্গার পুত্র জবরদস্ত খা ও অমাত্যবর্গ এই সময়ে তাহাকে যুদ্ধের জন্ত উত্তেজিত করিতে লাগিলেন। কিন্তু তাহাতে বিশেষ কেন ফল হইল না। রহিম-স হুগলী হইতে মুকসুদাবাদে উপস্থিত হইল। মুকমুদাবাদ প্রদেশের কয়েকজন জমাদার এই বিদ্রোহীগণের পক্ষাবলম্বন করিলেন। এতন্মধ্যে ফতেসিংহের জমিদারগণই প্রধান। ফতেসিংহের তদনীন্তন জমিদার, সবিতারারের বংশোদ্ভব ঘনভামের পুত্র জগৎ, কালু প্রভৃতি আতি দ্বাস্তু বলিয়া প্রসিদ্ধ ছিল। তাহারা রহিমসার সহিত যোগদান করিম, অনেক স্থানে লুটপাট ও উপদ্রব আরম্ভ করে। রহিমসা মূকমুদাবাদের দিকে অগ্রসর হইয়া, তথাকার জায়গীরদার নেয়ামত খাকে তাহার সহিত যোগ দিবার জন্ত আহবান করেন।f * ہمیت تسمـجـے۔

  • “The country in possession of rebels were estimated at Sixty lacs of Rupees per annum, and that their force consisted or 12ooo cavalry and 32000 infantry.—Governor, Sir Charles Eyer's letter dated Decr, 1696 (East India Records. Vol XIX, P. 263).

+ “ঘনঙ্গ্যামসুত জ্ঞেয়শ্চম্বারে। গুরুসাহসাঃ জগৎ কালুশ্চ বেণীশচ কৃঞ্চরীমশ্চ বিশ্রুত ।