পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৪১৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৩৮২ কলিকাতা সেকালের ও একালের । ফরকসিগারের সম্রাট উপাধি ধারণ—মুরশীদ কুলীর পুনরায় নবাব-নাজিমী । পদ প্রাপ্তি—ফরকশিয়ারের নিকট উপহার প্রেরণ—মুরশীদ কুলীর সহিত পুনরায় ইংরাজের সংঘর্ষ—ইংরাজদের সম্রাট ফরকশিয়ারের দরবারে দূত প্রেরণ—সৰ্ম্মান ও ডাক্তার হামিস্টানের উপহার ও নজরানীসহ সম্রাট দরবারে গমন—সম্রাটের পীড়া—তামিস্টান কর্তৃক সম্রাটের পীড়া শাস্তি— ইংরাজ পক্ষের প্রচুর সন্মান ও পুরস্কার লাভ—ফরকশিয়ারের নূতন সনন্দ-কলিকাতার পার্শ্ববৰ্ত্তী ৩৮ খানি গ্রাম ক্রয়ের অনুমতি—এতৎ সম্বন্ধে মুরশীদ কুলীর প্রতি- ' যোগিতা-এই গ্রামগুলির বর্তমান ও অতীত পরিচয় তালিকা। নবাব মুরশীদ কুলী থার মৃত্যু—র্তাহার সম্বন্ধে নানাবিধ জ্ঞাতব্য কথা। নবাবী আমলে দেশের অবস্থা । নবাব মুরশীদ কুলী খাঁর আমল । এ অধ্যায়ে, আমরা পুরাতন ফোট-উইলিয়ম সম্বন্ধে নানা কথা, মুরশীদ কুলী খাঁর ইংরাজদের সহিত ব্যবহার—“রোটেশন” বা পৰ্য্যায়ক্রমিক গবর্ণ মেন্টের আমলে,ইংরাজ-বাণিজ্যের অবস্থা ও দেশীয় শাসক-সম্প্রদায়ের সহিত তাহাদের মনোমালিন্য, প্রভৃতি সম্বন্ধে কতকগুলি প্রয়োজনীয় কথা বলিব। ঔরঙ্গজেবের মৃত্যুর পর, তাহার পৌত্র বাঙ্গালার সুবেদার সুলতান আজিমওখান, পিতার সাহাযার্থে প্রস্তুত হইতে লাগিলেন । সরকারী রাজকোষ তিনি ইতিমধ্যেই হস্তগত করিয়াছিলেন । কিন্তু এ যুদ্ধোদমে, আরও টাকা চাই । এ টাকা আসেই বা কোথা হইতে ? শেষ তিনি ইউরোপীয় বণিকদের উপর পড়িলেন। যুদ্ধের ব্যয় নিৰ্ব্বাঙ্গার্থে, তাহীদের নিকট একলক্ষ মুদ্রা চাহিয়া বসিলেন । ইংরাজেরা এ সংবাদ শুনিয়া ভয় পাইলেন । বঙ্গের মুবাদারের এ দাবির কতকাংশ দিতে বাধ্য হইলেও তাহীদের ক্ষমতায় কুলাইবে না। কিন্তু এ সম্বন্ধে,প্রথম উত্তেজনার কাল উত্তীর্ণ হইলে,ইংরাজের বুঝিলেন—ঔরঙ্গজেবের মৃত্যুতে র্তাহাদের একরূপ সুবিধাই হইয়াছে। পদস্থ রাজকৰ্ম্মচারিরা এখন সকলেই যুদ্ধের হাঙ্গামায় ব্যস্ত। এই অবসরে, অসম্পূর্ণ দুর্গের বাকী কাজগুলি শেষ করিয়া লওয়া যাইতে পারে। কাজেই এই উপযুক্ত অবসরে, তাহারা নদীতীরের দুইটা বুরুজ নিৰ্ম্মাণ-কাৰ্য্য শেষ করিয়া ফেলিলেন । পাটনা হইতে এই সময়ে সংবাদ আসিল—সুৰাদার যুদ্ধকার্য্যের প্রয়োজনীয় টাকা আদায় করিবার জন্য, জবরদস্তি আরম্ভ করিয়াছেন। ইংরাজদের কয়েকজন কৰ্ম্মচারীকে তিনি ফাটকে দিয়াছেন। এই সংবাদে বিচলিত হইয়া, কলিকাতা-কেন্সিল, রাজ-দরবারে একখানি পত্র পাঠাইলেন—তাহার স্থলমৰ্ম্ম এই, “আপনার যদি আমাদের উপর অন্যায় জবরদস্তি করেন, তাহার ফল