পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৪৫৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পঞ্চদশ অধ্যায় । $$$. নিকটস্থ অনেক ভূভাগ নিজের জমীদারী ভুক্ত করিয়া লরেন। এই সমস্ত । জমীদারী, তাহার করায়ত্ব হইলে, এবং অর্থবল এবং লোকৰল বৃদ্ধি হইলে, সীতারাম নিজেকে স্বাধীন রাজা বলিয়া ঘোষণা করেন। হরিহর-নগরের পরপারে মধুমতী তীরে, সীতারামের রাজধানী স্থাপিত হয়। এখানে তাহার কিছু পৈত্রিক-সম্পত্তিও ছিল । জনপ্রবাদ এই, প্তাহার গৃহ-দেবতা, লক্ষ্মীনারায়ণ হইতেই সীতারামের সৌভাগ্যোদয় হয়। নিখিল বাবুর মুরশীদাবাদের ইতিহাসে, সীতারামের লক্ষ্মীনারায়ণ প্রাপ্তির একটা জন-প্রবাদের উল্লেখ আছে। সীতারাম একদিন অশ্বারোহণে গমন করিতে করিতে, একস্থানে তুহার অশ্বের খুর প্রোথিত হইয়াছে বলিয়া জানিতে পারেন । অশ্ব স্থিরগতি হইল দেখিয়া, সীতারাম ইহার কারণমুসন্ধানের জন্ত অশ্বপুষ্ঠ হইতে অবতীর্ণ হন । কি কারণে সেইস্থানে অশ্বখুর প্রোথিত হইল, তাহার তথ্যাঙ্গুসন্ধান জন্ত সেই স্থান খনন করাইতে করাইতে, প্রথমে একটি ত্রিশূল, পরে মন্দিরের চুড়া ও পরিশেষে মন্দির দেখিতে পাওয়া যায় । এই মন্দির-মধ্যে লক্ষ্মীনারায়ণ শিলা ছিলেন । লক্ষ্মীনারায়ণকে প্রাপ্ত হইয়া সীতারামের উন্নতির পথ প্রসারিত হয় । সীতারাম যে স্থানে রাজধানী স্থাপন করেন—তথায় একজন মুসলমান সাধুর আবাসস্থান ছিল। ফকির সেই স্থানত্যাগ করিতে অসম্মত হওয়ায়, সীতারাম তাহাতে কোন আপত্তি করেন নাই। - এই ফকিরের নামাজুসারেই তিনি স্বীয় রাজধানীর নাম “মহম্মদপুর" রাখেন । সীতারামের দুর্গ মৃত্তিকা-নিৰ্ম্মিত। ইহার চারিদিকের ৰেষ্টন এক ক্ৰোশ । এই দুর্গের চারিদিকে গভীর পরিখা ছিল। এই পরিখা হইতে উত্তোলিত মৃত্তিক সহায়তায়, তুর্গ-প্রাচীর নিৰ্ম্মিত হয় । দুর্গ-প্রাচীরের উপর সজ্জিত কণমানশ্রেণী । তুর্গ মধ্যে ও পার্শ্বে-রামসাগর, সুখসাগর প্রভৃতি প্রকাও জলাশয় । দুর্গের প্রবেশদ্বারের সম্মুখেই রামসাগর। এই রামসাগর উত্তর দক্ষিণে পনর শত ও পূর্ব পশ্চিমে ছয় শত হাত বিস্তৃত। এখনও এই রামসাগর ও দুর্গ-পরিখার জঙ্গলময় পরিণাম, অতীতের স্থতি ঘোষণা করিতেছে । এই রামসাগর খনন সম্বন্ধেও একটি প্রবাদ প্রচলিত আছে। পূর্বে এইস্থানে এক দরিদ্র বৃদ্ধ বাস করিত। তাহার পুত্রের নামও সীতারাম : ছিল। একদিন বৃদ্ধ তাহার পুত্রকে আহাম করায়, রাজা সীতারাম রায় তথায় উপস্থিত হন। বৃদ্ধ সহসা রাজাকে সম্মুখীন দেখিয়া, ভঙ্গে وم