পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৪৬৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পঞ্চদশ অধ্যায়। ৪২৭ সীতারামের পরিণাম সম্বন্ধে আমরা যাহা কিছু পাইয়াছি, তাহাই সংকলিত করিয়া দেখাইলাম। উদয়নারায়ণের বিদ্রোহের সহিত কলিকাতার কোন সম্বন্ধ নাই, এজন্য তাহা বিবৃত না করিয়া—নবাৰ মুরশীদকুলী থার স্মৃতিচিহ্ন ও রাজস্ব-বন্দোবস্ত সম্বন্ধে কতকগুলি কথা বলিয়া, বর্তমান প্রস্তাবের উপসংহার করিব । কাঠরার মসজেদ মুরশীদকুলী খণর প্রধান কীৰ্ত্তিস্তম্ভ। এখনও এ মসজেদ ভগ্নাবস্থায় মুরশীদাবাদে বর্তমান। মসঙ্গেদ সংলগ্ন প্রস্তর-ফলক হইতে প্রমাণ হয়; ১১০৭ হিজরী বা ১৭২৩ খ্ৰীষ্টাব্দে এই মসজেদ নিৰ্ম্মিত হইয়াছিল। এইরূপ জনপ্রবাদ, যে ইহা মুসলমাসের পরিত্র তীর্থ মক্কাধামের মসজেদের অনুকরণে নিৰ্ম্মিত। এই মসজেদের পূর্ব পার্শ্বে, প্রবেশ স্বারের সিড়ির নীচে মুরশীদকুলী থার দেহ সমাহিত। এই মসজেদ সমুচতুরস্ৰ আকারে নিৰ্ম্মিত। এক সময়ে প্রকাগু সিংহদ্বার ও তদুপরিস্থ দ্বিতল গৃহ, নহবতখান, ও প্রহরীগণের বাসস্থান প্রভৃতি শোভিত হইয়া, ইঙ্গ এক দর্শনীয় পদার্থরূপে মুরশীদাবাদের শোভাবৰ্দ্ধন করিয়াছিল। এখন ইহা কাল-হস্তে ধীরে ধীরে বিচনীত হইয়া, ধ্বংশ পথে অগ্রসর হইতেছে। নবাব মুরশীদকুলী খণর এই কাঠর-মসজিদের অনুকরণে, নবাব সরফরাজ খণও একটী মসজিদ নিৰ্ম্মাণ। করিতে আরম্ভ করেন। কিন্তু তাহ সম্পূর্ণ হয় নাই । মুরশীদকুলী খণর “চেঙ্গেলসতুন" দরবার, একটা ইতিহাস-প্রসিদ্ধ মহাসৌধ। চল্লিশটী স্তম্ভশোভিত ছিল বলিয়াই, ইহার এইরূপ নামকরণ হইয়াছে। মুরশীদাবাদ চকবাজারের পশ্চিমে, যেখানে মণিবেগমের বিখ্যাত মসজেদটী অাছে—সেই স্থানেই দরবার-গৃহ ছিল। এই দরবারে প্রবেশ করিতে, বাঙ্গালার অনেক ভূস্বামীর প্রাণ র্কাপিয়া উঠিত। ইষ্ট ইণ্ডিয়া কোম্পানী, যে সময়ে বঙ্গের দেওয়ানী গ্রহণ করেন---সেই সময়ে ইহার অবস্থা বোধ হয়, অনেকটা শোচনীয় হইয়া উঠিয়াছিল। কারণ এই দরবারেই বার্ষিক শুভ পুণ্যাহের অনুষ্ঠান হইত। কিন্তু ঐ সময়ে চেঙ্গেল-সতুন—দরবার, পুণ্যাহের অনুপযোগী বলিয়া বিবেচিত হওয়ায়, মতিঝিলেই পুণ্যাহ-অনুষ্ঠান তইয়াছিল। এই চেহেল-সতুন দরক্সর-গৃহেই বাঙ্গালার ইতিহাস ৰিশ্রুত মসনদ বা প্রস্তর-সিংহাসন স্থাপিত হয়। নবাব মুরশীদকুলী, ঢাকা হইতে ইহা মুরশীদাবাদে আনেন । , এই ইতিহাস-বিশ্রুত মসনদ, সম্রাট, সাহজাহানের পুত্র সাহমুজার আমলে নিৰ্ম্মিত হয়। ঢাকা, রাজমহল মুরশীদাবাদ প্রভূতি তিনটা রাজধানীতে থাকিয় এবং তাহীদের ধ্বংস সাধন দেখিয়া, এখনও