পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৪৮১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ষোড়শ অধ্যায়। 苍8● কোম্পানীর প্রধান আয় ছিল। স্থান বিশেষে, ভূমির অবস্থাছুসারে তাহার খাজনা নিৰ্দ্ধারিত করিয়া দিতেন। কিন্তু তিন টাকার উর্ধে, তাহারা জমীর জমা-বৃদ্ধি করিতে পারিতেন না। জমীর খাজনা ব্যতীত, বাজারের আয়, টোল ও কুতবাটার জায়, জরিমানা প্রভৃতি দ্বারাও উহাদের জমাদারীর अब ह३७ । यहे चभौनांबौब्र यांग्रबारब्रब रुप्प्रकी डॉनिक, अडि भूब्राउन রেকর্ড হইতে উদ্ধত হইয়া, পাঠকবর্গের গোচরার্থে যথাস্থানে প্রকাশিত झुद्देश । কলেক্টার সাহেব, আদায়ী খাজনা ও অন্যান্ত আয়ের হিসাব, প্রতিমাসে কেন্সিলে দাখিল করিতেন। আজ পর্য্যস্ত কোম্পানীর পুরাতন বহিতে, এ হিসাবগুলি সযত্নে প্রক্ষিত। এই হিসাবগুলি হইতে জানিতে পারা যায়, কিরূপে ধীরে ধীরে কোম্পানীর জমীদারির আয় বৃদ্ধি হইতেছিল। ১৭০৪ খ্ৰীঃ অবো, জমা ও খরচের জের কাটিয়া, মুনফার ভাগে ৪৮৩২ টাকা মাত্র ছিল। ১৭৯৮ খ্ৰীঃ অঙ্গে অর্থাৎ চারি বৎসর পরে, ইহা হাজার টাকার উপর দাড়ায় । ১৭৯৯ খ্ৰীঃ অব্দে ইহা তেরশত টাকায় দাড়াইয়াছিল। হলওয়েলের আমলে এবং পরবর্তীকালে ইহা তিন সহস্র মুদ্রায় পরিণত হয়।* কোম্পানীর জমীদারীর এই আয়-বৃদ্ধি হইতে প্রমাণ হয়, প্রতি বৎসরেই কলিকাতা ধীরে ধীরে জনপূর্ণ হইয়া উঠিতেছিল। লোক বসতির পরিমাণ বৃদ্ধির সহিত, ইহার আরও বৃদ্ধি হইতেছিল। এই হিসাব হইতে জানিতে পারা যায়, ১৭০৩ হইতে ১৭৯৮ খৃঃ অব পৰ্য্যন্ত, এই গাঁচ বৎসরে কলিকাতার অধিবাসী সংখ্যা দ্বিগুণ হয় । ইহার পরবর্তী ৪০ বৎসরের মধ্যে কলিকাতার লোক-সংখ্যা তিনগুণ বৃদ্ধি পাইয়াছিল। - সুতালুট অঞ্চলে অর্থাৎ বর্তমান বড়বাজারের দিকে লোক সংখ্যা কিছু বেশী ছিল । দেশীয় অধিবাসীরা, এই সময়ে জাহ্নবী-তীরবর্তী এই সুতালুটতে জমী জমা করিয়া লয়েন। মুতালুটার প্রাস্তবত্তী ঘাটসমূহে, দেশীয় নৌকাগুলি তাহাদের মাল-পত্র নামাইত। আজকাল বড়বাজারে ষে স্থানে মঙ্গরেশ্বর শিব প্রতিষ্ঠিত, ইহার নিকটেই দেশীয় ব্যবসায়ীদের মাল-পত্র নামাইবার একটা ঘাট ছিল। মহাজনেরা এই ঘাটে নৌকা বাধিরা, সৰ্ব্বপ্রথমে লঙ্গরেশ্বর শিবের পূজা করিতেদ। ইংরাজদের প্রথম আমলে এই বড়বাজার, গ্রেটবাজার’ ( Great-Bazar) ৰলিয়া উল্লিখিত হইয়াছে। নবাব মুরশীদকুলী

  • Holwel's Tracts (3rd Edition) 1774. P. 241.