পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৭৪৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


একবিংশ অধ্যায় । १०१ বিপদে সহানুভূতি দেখাইবার জন্য ও রাজভক্তি প্রকাশের জন্য, কলিকাতা সহরের সেই সময়ের গণ্যমান্ত বাঙ্গালীগণ একটী সভা করেন। ১৭৯৮ খ্ৰীষ্টাব্দের ২১ আগষ্ট, এই সভা কলিকাতায় আহত হয়। এই সভার অনুষ্ঠাতাগণের মধ্যে—গেীরচরণ মল্লিক, নিমাইচরণ মল্লিক, রামকৃষ্ণ মল্লিক, গোপীমোহন ঠাকুর, কালীচরণ হালদার, রসিকলাল দত্ত, গোকুলচন্দ্র দত্ত প্রভৃতির নাম দেখিতে পাওয়া যায়। এই সভায় সেই দিনে ২•৮০০ টাকা চাদ আদায় হয়। সেকালের ইংরাজের বিবাহ । তখন অতি অল্প সংখ্যক ইংরাজ মহিলাই এদেশে আসিতেন । র্যাহারা আসিতেন, র্তাঙ্কণদেরও সহজে বিলাত যাওয়া ঘটিত না । এজন্য কোন নূতন ইংরাজ মহিলা কলিকাতায় আসিলে, তাহার বাড়ীতে পরিচিত অপরিচিত ইংরাজদের ভিড় লাগিয়া যাইত। অবশ্য ইহাদের সকলের অদৃষ্ট সুপ্রসন্ন হইত না । যে ভাগ্যবান ইংরাজ—সেই নবাগত বরবর্ণিনীর হৃদয়াধিকার করিতে সমর্থ হইতেন, তিনি র্তাহাকেই পত্নীরূপে গ্রহণ করিতেন। খোদ গবর্ণর-সাহেবের লাইসেন্স ব্যতীত, কোন বিবাহই সেকালে মঞ্জুর হইত না। পাদরী সাহেবের বিবাহ দিবার সময় খুব লম্বা চৌড় বৃত্তি পাইতেন। এক একটী বিবাহে, পাদরীগণ ১৬ হইতে ২০ মোহর পর্য্যস্ত যজমানের নিকট আদায় করিতেন। সেকালের ঔষধ ও ডাক্তারের ভিজিট । সেকালে এদেশীয় লোকেরা বিলাতী ঔষধ খাইত না। সাহেক ডাক্তারও খুব কম লোকেই দেথাইত। মধ্যবিত্ত ইংরাজদেরও সেই দশা । সেকালের ইংরাজ ডাক্তারেরা পান্ধী করিয়া রোগী দেখিতেন । ডাক্তারের ভিজিট ছিল—একটী সোণার মোহর। যদি কোন বাটীতে একটার অধিক রোগী থাকত, তাহা হইলে এই হিসাবেই প্রত্যেক রোগীর জন্ত ভিজিটু দিতে হইত। ঔষধের দামও সেইরূপ চড়া ছিল। কলিকাতায় বর্তমান কেল্লা নিৰ্ম্মিত হইবার পর, কোম্পানী-বাহাদুর পুরাতন কেল্লার মধ্যে, একটী ঔষধালয় স্থাপন করিয়াছিলেন। এখানে সুবিধা দরে ঔষধ বিক্ৰী হইত। এই সুবিধার দরটা একবার দেখুন। কোন কিছু ভেষজ-দ্রব্যের ছালের দাম, প্রতি আউন্স তিন টাকা । কোন প্রকার ংিরেচক শোধিত-লবণের মূল্য প্রতি আউন্স এক টাকা। একটা