পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৭৪৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দ্বাবিংশ অধ্যায় । - Գ o > -o-o-o: বিচির বর্ণে সুন্দর রূপে চিত্রিত। এই জাহাজের সম্মুখ দিকে, সোনার গিলট বে ইগল-পক্ষীর প্রতিমূৰ্ত্তি। পশ্চাতে একটা সুচিত্রিত বাঘের মাথা । কুড়িজন লোক মুখাসীন হইয়া, এই নৌকায় যাইতে পারে।” তখন অনেক ইংরাজ, প্রতিদিন কলিকাতা হইতে গার্ডেনরিচে নৌকা করিয়া বেড়াইতে যাইতেন। দূরবর্তী স্থানে যাইতে হইলে—র্তাহারা চন্দননগর, মুখসাগর প্রভৃতি স্থানে যাইতেন । ষ্টাভেরিন্স ১৭৭০ খ্ৰীঃ অকে কলিকাতায় আসেন । তিনি লিখিতেছেন—“এদেশের একরকম বোট দেখিতে অতি সুন্দর ও বিচিত্র রূপে চিত্রিত। এ গুলি “ময়ূরপন্থী” বলিয়া সাধারণে পরিচিত। বোট গুলি খুব লম্বা ও সরু । অনেক স্থলে লম্বায় একশত ফিট । চওড়ায় আট ফিটু। চল্লিশজন লোকে দাড় লইয়া এই “ময়ুরপঙ্খী” চলাইত। নৌকার মাথার দিকে হয় স্ববৃহৎ সৰ্প-মূৰ্ত্তি, না হয সুচিত্রিত ময়ূর-মূৰ্ত্তি। নৌকার পশ্চাতের দিকে, ডেকের উপর চারিট রৌপ্য-দণ্ডে একখানি রেশমী চাদোয়া খাটানো থাকিত । নৌকার অধিকারী, বন্ধুবান্ধবের সঙ্গে এই উন্মুক্ত স্থানে বসিয়া, নদীবক্ষে প্রবাহিত শীতল বায়ু সেবন কৱিতেন । এই সব নৌকা নানাবিধ বিচিত্রবর্ণে সোণালী রঙ্গে চিত্রিত করা হইত, এজন্ত এ গুলির দাম বড় বেশী । গঙ্গার উপর এ প্রকার নৌকায় চড়িয়া, প্রভাত বা সান্ধা-ভ্রমণ বড়ই তৃপ্তিজনক । নাচের মজলিস্ । সেকালে দুর্গোৎসব উপলক্ষে, অনেক বড় বড় বাঙ্গালীর বাড়ীতে নাচের মজলিস হইত। মহারাজ নবকৃষ্ণ খুব জাকাষ্টয়া দুর্গোৎসব করিতেন তাহাতে অনেক বড় বড় ইংরাজ নিমন্ত্রিত হইতেন । এরূপ প্রবাদ শুনিতে পাওয়া যায়—লর্ড ক্লাইব, ওয়ারেণ হেষ্টিংস প্রভৃতি এই সব নাচের মজলিসে উপস্থিত থাকিতেন। রাজা সুখময় রায়ের দুর্গোৎসবও খুব জাকালে ছিল। সাহেবদের সুবিধার জন্য রাজা বাহাদুর, ছুইখানি বড় বড় টানা পাথার বন্দোবস্ত করিয়াছিলেন । ইহঁার বাটীতেই, হিন্দুস্থানী গতের সহিত ইংরাজী গত মিশাইয়া, সাহেবদের তৃপ্তর্থে ত্রেীর্য্যত্রিকানুষ্ঠান হইত। ইংরাজী-থিয়েটারে বিদ্যাসুন্দর রচয়িত ভারতচন্দ্র রায় গুণাকর । প্রথমে লালবাজারে ইংরাজদের একটী থিয়েটার স্থাপিত হয়। এ