পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৭৫৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ত্রয়োবিংশ অধ্যায়। ዓ »ማ জন্ধের সেপ্টেম্বর মাসে, তিনি কলিকাতায় উপস্থিত হন। ছেষ্টিংসের পদত্যাগের পর হইতে কর্ণওয়ালিসের কলিকাতায় আগমন সময় পৰ্ব্বাস্তু, এই কুড়ি মাস কাল, স্যর জন ম্যাকৃফারসন একটিনি গবর্ণরী করেন। ম্যাকফারসনের আমলে, এমন কোন নৃতন ঘটনা ঘটে নাই—যাহা বিশেষভাবে উল্লেখ যোগ্য। তবে তিনি গৰ্ব্ব করিয়া সকলের কাছে বলিয়া বেড়াইতেন,—“ইষ্ট-ইণ্ডিয়া-কোম্পানীর অধিকার সমূহের সুব্যবস্থা ও দুর্নীতিস্থচক কৰ্ম্মের মূলোচ্ছেদ করিয়া, আমি কোম্পানীর আড়াই লক্ষ টীকা বঁাচাইয়া দিয়াছি।” * লর্ড কর্ণওয়ালিস একজন শক্তিমান পুরুষ । ইংলণ্ডের তৎকালীন রাজমন্ত্রী পিটু ও কোম্পানীর ডাইরেক্টারগণ, তাহার হস্তে শাসন-সম্বন্ধে অসীম ক্ষমতা ও একাধিপত্য প্রদান করিয়া, তাহাকে বঙ্গদেশে প্রেরণ করেন। হেষ্টিংসের আমলে, রাজ্যশাসন ব্যাপার সম্বন্ধে, ক্ষমতা প্রকাশ ব্যাপার লইয়া, কেন্সিলের সদস্যগণের সহিত, গবর্ণর হেষ্টিংসের অনেক বিবাদ বিসম্বাদ হইয়াছিল। তাহার ফলে হেষ্টিংস ও ফ্রান্সিসে দ্বন্দ্ব-যুদ্ধ— রাজ্যশাসন প্রণালীতে ঘোর বিশৃঙ্খলতা। কিন্তু বিলাতের কর্তারা, কর্ণওয়ালিসকে স্পষ্টভাবে আদেশ দিয়াছিলেন—“কেন্সিলের সদস্যগণের উপর আপনার হুকুমই শেষ হুকুম। যাহাতে বাঙ্গালীর শাসনতন্ত্র সম্পূর্ণরূপে দোষশূন্ত হয়, তাহার ব্যবস্থা আপনি স্বেচ্ছানুসারে করিবেন।” লর্ড কর্ণওয়ালিস দৃঢ়চেতা ও নির্ভীক রাজপুরুষ ছিলেন। তিনি কলিকাতায় আসিয়াই শাসনতন্ত্র সংস্কারে মনযোগ দেন। কোম্পানীর কৰ্ম্মচারীরা ও সেকালের সিবিলিয়ানেরা বেতন কম পাইতেন বলিয়া, গুপ্তভাবে নানারূপ ব্যবসা-বাণিজ্য ও বেনামী কারবারে যোগ দিতেন। লর্ড কর্ণওয়ালিস প্রচুর পরিমাণে বেতন বৃদ্ধি করিয়া দিয়া, তাহদের গুপ্ত ব্যবসায়ের মূলোচ্ছেদ করিয়া এবং এ সম্বন্ধে অপরাধীদের শাস্তি দিয়া, শাসনতন্ত্রের এক বিরাট সংস্কার সাধন করেন। লর্ড ক্লাইভ, বহু চেষ্টাতেও যে সমস্ত কুপ্রথা দমন করিতে পারেন নাই, কর্ণওয়ালিস তাহা অতি সহজে নিম্পন্ন করিয়াছিলেন। টিপু সুলতানের ধ্বংসসাধন ও মহারাষ্ট্রশক্তির ক্ষয় করিয়া, লর্ড কর্ণওয়ালিস ইতিহাসে প্রথিতযশা হইয়াছেন। কিন্তু বঙ্গদেশে, তাহার যশের osta org's Permanent Settlement of "চিরস্থায়ী-বন্দোবস্ত” এবং দেওয়ানী ও ফৌজদারী-বিধির সংস্কার। তাহার শাসনকালের নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে, তিনি খুব কমই