পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৭৫৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ত্রয়োবিংশ অধ্যায় । למף( আদেশে, এই পুরাতন কাছারী বাড়িটকে ভাঙ্গিয়া ফেলা হয়। আজ কাল যেখানে হাইকোর্ট অাছে, সেইস্থানে "নিউ-কোর্ট হাউস” নিৰ্ম্মিন্ত হয়। ভবিষ্যতে এই নিউ-কোর্ট-হাউস্ ভাঙ্গিয়া ফেলিয়া, সেইস্থানে প্রথমে সদর দেওয়ানী-আদালত, তৎপরে বর্তমান হাইকোর্টের স্থান হইয়াছে। আর পুরাতন কোর্ট হাউসের ভূমি অধিকার করিয়া, বৰ্ত্তমান স্বচগির্জা (যাহা রাইটাস বিল্ডিংএর নিকট আজও বর্তমান ) নিৰ্ম্মিত হইয়াছিল। লর্ড কর্ণওয়ালিস ১৭৯৬ খ্ৰী: অব্দে এদেশ ত্যাগ করেন। র্তাহার স্থানে স্যার জন শোর ( পরে লর্ড টেন্‌মাউথ ) বাঙ্গলার ভাগ্যবিধাতা হন। ইতিহাসপ্রসিদ্ধ হলওয়েল সাহেব, সেকালের কলিকাতার প্রথম “সাহেৰজমীদার” । এই জমীদারের কাজ ছিল, সহরের উন্নতি, পথ্য-সংস্কার, শান্তিস্থাপন ও কলিকাতার প্রজাদের নিকট খাজনা আদায় করা। স্যর জন শোর এই “জমীদারের” পদ উঠাইয়া দেন। “জষ্টিসেস্ অব -দি-পিস" নামধেয় সমিতির হস্তে, র্তাহার আমলেই কলিকাতার মিউনিসিপ্যাল-বিভাগের ভার অর্পিত হয় । ১৭৯৪ খ্ৰীঃ অব্দে এই পরিবর্তন ঘটে। এই সঙ্গে সঙ্গে কলিকাতা ও উপকণ্ঠবর্তী স্থানসমূহের সীমাও নির্দিষ্ট হইয়া যায় । লর্ড ওয়েলেসলির আমলে, ভারতের সর্বস্থানেই ইংরাজের রাজশক্তি প্রকট হইয়া উঠে। তাহার আমলেই কলিকাতার বর্তমান গবর্ণমেণ্টহাউস নিৰ্ম্মিত হয়। নবনিৰ্ম্মিত গবৰ্ণমেণ্ট-হাউসে, প্রবেশ সময়ে খুব জাকজমক হইয়াছিল। লর্ড ওয়েলেসলিকে, ইংরাজের কোম্পানীর আমলের “আকবর” বলিয়া উল্লেখ করিয়া থাকেন। এই সময়ে কলিকাতার লাটপ্রাসাদে, একটা মহোৎসবের অনুষ্ঠান হয়—সেরূপ মহোৎসব সেকালে আর হয় নাই। সাত আট শত পদস্থ ইংরাজ নরনারী ও এদেশীয় অনেক সন্ধান্ত ব্যক্তিগণ, গভর্ণর ওয়েলেসলির এই নিমন্ত্রণ মহাসভায় উপস্থিত । ছিলেন। এসপ্লানেডের নিকটস্থ বাড়ীগুলি, ফোর্ট উইলিয়াম দুর্গপ্রাকার ও কলিকাতার প্রধান প্রধান অট্টালিকা, উজ্জল আলোক-মালায় পরিশোভিত হইয়াছিল। নদীবক্ষে অসংখ্য পোতরাজি ও পতাকাদি শোভিত হইয়া এই দৃষ্ঠের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করিয়াছিল। বর্তমান নূতন লাট-প্রাসাদের উত্তরদিকের বারানায়, এই গৃহপ্রবেশ দিনে লর্ড ওয়েলেসলি একটি দরবার করেন। এই দরবারে ভারতীয় প্রধান প্রধান সামন্তরাজ ও জমীদারগণের প্রতিনিধিসমূহ উপস্থিত ছিলেন। কলিকাতার অনেক গণ্যমান্ত লোকও এই দরবারে হাজির হন। দরবারের