পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৭৬৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


*○o কলিকাতা সেকালের ও একালের । আসিবার সময়, জঙ্গনই চেম্বাসকে হেষ্টিংসের উপর একখানি স্বপালি পত্র দেন । চেম্বাস, আইনজ্ঞ ও সুপণ্ডিত জজ ছিলেন। তাহার অন্য দুইজন সহযোগী—অর্থাৎ লিমেষ্টার ও হাইডের অপেক্ষ তাহার আইন-সম্বন্ধীয় জ্ঞান খুব বেশী ছিল। তিনি যদি একটু দৃঢ়চিত্তে কাজ করিতেন—সহজে তাহার সহযোগীদের মতে সায় না দিতেন, তাহা হইলে নন্দকুমার হয়ত প্ৰাণে বাচিয়া যাইতেন। সম্রাট দ্বিতীয়-জর্জের আইন অনুসারে, নন্দকুমারের নামে জল-অপরাধের “চার্জ" হয়। চেম্বাসই প্রথমে আপত্তি তোলেন, “দ্বিতীয়-জর্জের আইন অনুসারে না হইয়া সাম্রাজ্ঞী এলিজাবেথের আমলের আইনানুসারে এই মোকদ্দমার চার্জ করা হউক।” দ্বিতীয় জর্জের আইন অনুসারে—ইংলগুে জাল করার দণ্ড ছিল—ফাসী। কিন্তু এলিজাবেথের আইনে—তাহা ছিল না। র্তাহার সহযোগীগণ, তাহার এই অভিমতের বিরুদ্ধে মত প্রদান করেন—এবং চেম্বাস তাহার হৃদয়ের দুৰ্ব্বলতার জন্য, এ বিষয়ে আর তর্কাতর্কি না করিয়া সহযোগীদের মতেই মত দেন। ইহার পর সমস্ত মোকদ্দামাটার সময়ই তিনি প্রতিদিন বেঞ্চে উপস্থিত ছিলেন, ৰাদপ্রতিবাদ সবই শুনিয়াছিলেন, এবং প্রাণদণ্ডাজ্ঞাও সমর্থন করিয়াছিলেন। ইম্পির এজলাসে অার একটা মজার মোকদ্দমা হয়। ঘটনাস্থল বর্তমান আলিপুর। কৌন্সিলের অন্যতম সদস্য ফ্রান্সিসের আলিপুরে একটা পল্লীনিবাস ছিল । ইহা বৰ্ত্তমান বেলভেডিয়ারের নিকটস্থ কোন স্থানে হইবে, এবং হেষ্টিংস-হাউল হইতে কিছু দূরে। বেলভেডিয়ার সান্নিধ্যে মিঃ লি-গ্রাও বলিয়া একজন ইংরাজ থাকিতেন । র্তাহার পত্নী, সেকালের কলিকাতা সমাজে পরম সুন্দরী রমণী বলিয়া পরিগণিত ছিলেন। র্তাহার স্তায় কেতাদুরন্ত, সুন্দরী তখনকার কলিকাতায় ছিল না । স্বনামখ্যাত ফিলিপ ফ্রান্সিস, এই সুন্দরীর রূপ দেখিয়া মোহিত হন। এবং প্রবৃত্তিদমন করিতে না পারিয়া, নিশাভিসারে উদ্যত হন। একট দড়ির সিড়ির সহায়তায়, গভীর রাত্রে তিনি লি-গ্রাণ্ডের বাড়ীর উপরতলে উঠেন। সাহেব সেদিন বাড়ী ছিলেন না। মেম-সাহেবের কামরায় প্রবেশ করিলে, তিনি সহসা ফ্রান্সিসকে তাহার বিশ্রাম কক্ষে উপস্থিত দেখিয়, वज्रहे चांउहिउ झम,1:: -> এই ঘটনার পনরামিনিটের পরে একটা সোরগোল হইয়া পড়ায়, ফ্রালিস ধরা পড়িবার ভয়ে সেই দড়ির সিঁড়ি দিয়া নীচে পলায়ন করেন। তাইরি