পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৭৮৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ዓ®8 কালকাতা সেকালের ও একালের । ইহার প্রথম উদেশ্ব ছিল—এদেশীয়দের জন্য একটা হাসপাতাল স্থাপন। सिरु টাকা অতি কম উঠায়, হাসপাতাল-কমিটী তাহা লইতে অস্বীকার করেন। এই টাকা পরিশেষে যোত্রহীন অক্ষম ঋণী—যাহারা দেনার দায়ে কারাগারে আবদ্ধ আছে, তাহদের সাহায্যে ব্যয়িত হয়। একটী সভায় স্থির হয়—প্রত্যেক ইংরাজ দেনদীর দশ টাকা, পটুগীজ সাত টাকা ও এদেশীয় দেনদারগণ দুই টাকা হিসাবে এই ফণ্ড হইতে সাহায্য পাইবে । ১৭৯৫ খ্ৰীঃ অব্দে এইরূপ লটারির দ্বারা একটী “চ্যারিটেবল-ফও” বা দাতব্য-ভাণ্ডার স্থাপিত হয়। গবর্ণর-জেনারেল এই ভাণ্ডারের পেট্রন বা মুরুব্বি ছিলেন। বড়দিন, ও গুড ফ্রাইডে প্রভৃতি খ্ৰীষ্টান উৎসব দিনে, দরিদ্র খ্ৰীষ্টানদিগকে অর্থ বিতরণ করা এ ফণ্ডের উদ্দেশ্য। পরবর্তীকালে ইহ “ডিষ্ট্রক্ট চ্যারিটেবল-সোসাইটতে” পরিবর্তিত হয়। এ সোসাইট এখনও বৰ্ত্তমান । নদীপথে গমনাগমন । তখন রেল ছিল না, এজন্য কলিকাতা হইতে উত্তর পশ্চিমে কোন স্থানে যাইতে হইলে হয় পান্ধীর ডাক, না হয় বোট-বজরার সহায়তা লইতে হইত। বোট ও বজরার ভাড়ার তালিকা আমরা পূৰ্ব্বে উদ্ধৃত করিয়াছি । ১৭৯৩ খ্ৰীঃ অব্দে, বাষ্পীয়-তরণীর কোন অস্তিত্বই ছিল না। সেই সময়ে বিলাতে আল ষ্ট্যানহোপ, এ সম্বন্ধে প্রথম পরীক্ষা আরম্ভ করিয়াছিলেন। কিন্তু তাহাও বিশেষ সন্তোষজনক হয় নাই । ১৮০১ খৃঃ অব্দের ১৮ই আগষ্ট, গবর্নর-জেনারেল বাহাদুর বারাকপুরে এক মন্ত্রণা-সভা আহবান করেন। এই সভায় স্থির হয়—“পিটার স্পিক সাহেব ফোর্ট-উইলিয়মের ডেপুটী গবর্ণর নিযুক্ত হইলেন।” এই সময়ে খোদ লাট-বাহাদুর একবার জলপথে উত্তরপশ্চিম প্রদেশে যাত্রা করিয়াছিলেন। এই যাত্রার বিবরণী হইতে জলপথে উত্তরপশ্চিম প্রদেশ ভ্রমণের অনেক কথা জানিতে পারা যায়। বারাকপুর হইতে যাত্রা করিয়া তিনি প্রথমে চুচুড়ায় পৌছেন। ২৬এ তারিখে দাযুদপুরে পৌঁছিলে, মুরশিদাবাদের নবাব তাহাকে সেইস্থানে প্রত্যুদগমন করিতে আসেন। ৩১এ তারিখে, লাট-বাহাদুর বহরমপুরে পৌঁছান। ৩রা সেপ্টেম্বর, তিনি মুরশিদাবাদ নবাব-প্রাসাদের ঘাটে অবতরণ করেন। মুরশিদাবাদে নামিয়া নবাবের আতিথ্য-স্বীকার করিয়া ও বেগমদের সঙ্গে সাক্ষাতন্তে লাট-বাহাদুর রাজমহল যাত্র করেন। ১১ই সেপ্টেম্বর তিনি রাজমহল ছাড়াইয়া যান। *