পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৭৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তৃতীয় অধ্যায় । 8X শৈথিলা প্রকাশ করিতেছেন। আমি এ ব্যাপারের রহস্য অবগত নহি । প্রকৃত সংবাদ আনাইবার জন্য, যশোরে লোক প্রেরণ করিয়াছি। আমার বোধ হয়, যশোর রাজ্যে ঘোর অরাজকতা উপস্থিত হইয়াছে—খাজনা পত্র আদায় হইতেছে না । এ অবস্থায়, আমিও নিজের কৰ্ত্তব্য বুঝিতে পারিতেছি না । এখন জীণহাপন যেরূপ আদেশ করিবেন, এ দাস তাহাই পালন করিবে ।” আকবর সাহ, কিয়ৎক্ষণ চিন্তার পর বলিলেন—“প্রতাপ । তুমি যদি সরকারের প্রাপ্য-রাজস্ব কোন উপায়ে যোগাড় করিয়া দিতে পার, তাহা হইলে আমি তোমাকে যশোরের সিংহাসনে প্রতিষ্ঠিত করিব । আশা করি তোমার স্থায় বুদ্ধিমান যুবক, সুশৃঙ্খলার সহিত রাজ্য-শাসনে সমর্থ হইবে ।” - প্রতাপের মনের গুঢ় বাসনা সিদ্ধ হইল । তিনি বাদসহিকে কুর্ণিস করিয়া বলিলেন—“জ{হাপনা ! এ দাসকে কয়েকদিন সময় দান করিলে বোধ হয়, আমি রাজস্ব-সংগ্ৰহ করিতে পারি ” বাদসহি ইহাতে সন্মতি দান করিলে, প্র তাপ অল্পদিনের মধ্যেই, রাজঙ্গের প্রয়োজনীয় অর্থ, আগরা হইতেই সংগ্ৰহ করিলেন । আগরীর অনেক আমির-ওমরাহ তাহার বন্ধুস্থানীয় হইয়াছিলেন–র্তাহাকে বিশ্বাস ও স্নেহ করিতেন। কাজেই এই দূরদেশে—অর্থ সংগ্রহ করা, তাহার পক্ষে বেশী অসম্ভব হইল না । সম্রাট, প্রতাপের প্রদত্ত রাজস্ব হইতে—তিন লক্ষ টাকা, তাহাকে প্রতাপণ করিলেন । তাহার আদেশে, তখনই বাদসঙ্গী আজ্ঞাপত্র ব! রাজ্য-প্রদানের "ফরমান” প্রস্তুত হইল । সঙ্গে সঙ্গে সেই ফরমানের প্রতিলিপি বঙ্গদেশে প্রেরিত হইল । কেবল বাদসাহী ফারমান নহে, প্রতাপ বাসাহের অনুমতি লইয়। সেনা-সংগ্রহে প্রবৃত্ত হইলেন। তিনি বাদসাহকে বুঝাইলেন, সহস। রাজোপাধি লইয়া দেশে উপস্থিত হইলে এবং রাজ্য দখল করিবার চেষ্টা করিলে, পিতৃব্য বসন্তরায় কোনরূপ বাধা প্রদান করিতে পারেন। বাদসাহের অনুমতি লইয়া, তিনি দ্বাবিংশতি সহস্ৰ সেনা সমভিবাণহারে আগ্র পরিত্যাগ পূর্বক, যথা সময়ে কাশীধামে উপস্থিত চুইলেন। শঙ্করের পরামর্শানুসারে, প্রতাপ এই পুণ্য-ক্ষেত্র বারাণসীতে, খুব দান ধান করেন। কয়েকট ঘাট-প্রতিষ্ঠা--মঠধারা সন্ন্যাসীদের বৃত্তি-ব্যবস্থা J