পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৮১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চতুৰ্ব্বিংশ অধ্যায়। ?brW) ~-–ങ്ങമ്മങ്ങജ সুবৰ্ণৱ-সাহেবের একটা সুন্দর আবাস-বাট ছিল । কিন্তু অনেক সময়, তিনি দুর্গের মধ্যে না থাকিয়া, উদ্যান-পরিবেষ্টিত এই বাটীতেই বাস করতেন। এই বাটী-সংলগ্ন বাগানটী, গঙ্গার ধার হইতে বরাবর লালদীঘি সধান্ত বিস্তৃত ছিল। ১৭৫৬ খ্ৰীঃ অব্দে, নবাব কলিকাত আক্রমণ করেন। ইহার পর বৎসর, লর্ড ক্লাইভ ও কর্ণেল ওয়াটসন কলিকতা পুনরুদ্ধার করেন। সেই সময়ে প্রেসিডেন্ট সাহেবের এই বাড়িটা কোম্পানি বাহাদুরের “মেরিন-ইয়ার্ডে” পরিণত হয়। চর্ক-লেনের পূৰ্ব্বে ও পুরাতন গোরস্থান অর্থাৎ সেন্টজন-গির্জার উত্তরে, হেয়ার-স্ট্রীট হইতে একটী ক্ষুদ্র গলি আরম্ভ হইয়াছে। এই লিটার নাম “গারষ্টিন্‌স-প্লেস” । মেজর-জেনারেল জন গারষ্টিনের নামে এই গলিট প্রতিষ্ঠিত। এই গারষ্টিন সাহেবের তত্ত্বাবধানে ও প্ল্যান অনুসারে বর্তমান টাউনহল নিৰ্ম্মিত হয়। গারষ্টিন সাহেব—এই গলির মধ্যে, কতকগুলি দ্বিতল ও ত্রিতল বাড়ী নিৰ্ম্মাণ করিয়া ভাড়া দিয়াছিলেন । কয়লাঘাট ষ্ট্রট । ডালহৌসী-স্কোয়ারের পশ্চিম দিক হইতে আরম্ভ হইয়া, এই পথীি ষ্ঠাণ্ড-রোডের সহিত মিশিয়াছে। এই রাস্তার ধারেই, কলিকাতার পুরাতন-কেল্লার পশ্চিম প্রাচীর ছিল। এই প্রাচীর নিকটে, গঙ্গাতীরে একটা ঘাট সেই সময়ে বর্তমান ছিল । তাহার নাম ছিল “কেল্লা-ঘাট”। এই কেল্লা ঘাটের অপভ্রংশ হইতে “কয়লাঘাট” দাড়াইয়াছে। উনবিংশ শতাব্দীর প্রথম ভুগে এই ঘাট হইতেই জাহাজে করিয়া পাথুরিয়া-কয়লা চালান হইত। এজন্ত ও কয়লাঘাট নামকরণ হইতে পারে। ১৭৯৪ খৃঃ অব্দে, অপ জনের মাপে এই পথট Tankshall টাকশাল ষ্ট্রীট নামে লিখিত হইয়াছে। এইবার আমাদের লালদীঘির নিকট আসিতে হইবে। আজকাল লালদীঘির চতুঃপার্শ্বস্থ স্থান, ডালহৌসী-স্কোয়ার নামে পরিচিত। আগে এই স্থানটর নাম ছিল—ট্যাঙ্ক-স্কোয়ার। ডচ এডমিরাল ষ্ট্যাভেরিনস্ ১৭৭৯ খ্রী: অব্দে কলিকাতা দেখিতে আসেন। তিনি—র্তাহার ভ্রমণ ইস্তান্তের একস্থানে লিথিয়াছেন—“গবর্ণমেণ্টের আদেশ অনুসারে ইনীর অধিবাসীদের বিশুদ্ধ পানীয় জল সরবরাহের জন্য, এই পুষ্করিণীটী নিত হইয়াছিল। ইহার জল অতি পরিষ্কার ও পুষ্করিণীর তলদেশে 'কটা গুপ্ত প্রস্রবণ থাকায়, এই পুষ্করিণীর জল কখনও কমিয়া যায়