পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৮৭০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৮০২. কলিকাতা সেকালের ও একালের। ১৮৪৬ খ্ৰীষ্টাৰে, এডুকেশন গেজেট পত্রিক প্রতিষ্ঠা হইলে, প্যারীচরণ তাহা বেতনভোগী সম্পাদক হন। প্যারীচরণ ছাত্রদের বড়ই প্রিয় ছিলেন। ছাত্রেরা তাহাকে দেবতার স্তায় ভক্তি করিত ও তিনিও তাহানের ' পুত্রবৎ স্নেহ করিতেন। প্যারীচরণের চেষ্টায়, “মুরাপান-নিবারিনী-সভা" প্রতিষ্ঠা হয়। সাধারণকে মুরাপানের অপকারিতা বুঝাইবার জন্ত ইংরাজীতে Well-wisher ও বাঙ্গালায় “হিতসাধক” বলিয়া দুইখানি পত্রিকা প্রচার এবং স্ত্রীশিক্ষা বিস্তারের জন্য প্যারীচরণ চোরবাগানে একটী বালিকা-বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করিয়াছিলেন। উড়িষ্যার মহা দুর্ভিক্ষের সময়, প্যারীচরণ একটা অন্নসত্র খুলিয়া, অনেককে অন্ন দান করেন। ৫২ বৎসর বয়সে—বহুমূত্র রোগে ইহঁর মৃত্যু হয়। ইহঁার ফাষ্টবুক, সেকেণ্ডবুক প্রভৃতি স্কুলপাঠ্য গ্রন্থগুলি আজও সমাদৃত। প্রসন্নকুমার ঠাকুরের ষ্ট্রীট। ৷ প্রসন্নকুমার ঠাকুর স্বনামধন্য পুরুষ। পাথুরিয়া-ঘাট ট্রীটে, তাহার প্রাসাদ যেখানে ছিল, এখন সেখানে "Tagore Castle” হইয়াছে। ইনি গোপীমোহন ঠাকুরের কনিষ্ঠ পুত্র এবং মহারাজা বাহাদুর স্যর যতীন্দ্রমোহন ঠাকুরের খুল্লতাত। প্রসন্নকুমার, অতুল ধনেশ্বর ছিলেন। তিনি ওকালতী পাশ করিয়াছিলেন বটে, কিন্তু কখনও প্রাকৃটিস করেন নাই। আবার অল্প মতে, স্বশ্রেণীর ধনবানগণের মধ্যে স্বাধীনভাবে জীবিকা অর্জনের পথ প্রদর্শন করিবার জন্ত, ওকালতী করিয়া বৎসরে গড়ে দেড়লক্ষ টাকা উপার্জন করিতেন। ১৮৩৮ খ্ৰীঃ অঙ্গে, যখন গভর্ণমেন্ট লাখেরাজ-জমী বাজেয়াপ্ত করিবার জন্য, প্রস্তাব করেন তখন প্রসন্নকুমার ঠাকুর বেঙ্গল-হরকরা নামক সংবাদপত্রে, এই সম্বন্ধে তীব্রভাবে গবর্ণমেন্টের কাৰ্য্যের আলোচনা করিয়াছিলেন। প্রসন্নকুমারের এই আন্দোলন ও টাউনহলে এ সম্বন্ধে এক বিরাট সভা, ভবিষ্যতে সুফল প্ৰসৰ করিয়াছিল। তখনকার গভর্ণর জেনারেল লর্ড অকল্যাও, এই আৰোলনের ফলে নিয়ম করিয়া দেন, ষে পঞ্চাশ বিঘার অনধিক লাখেরাজ জমীগুলির বাজেয়াপ্ত বন্ধ হইল। লর্ড ডালহৌসীর শাসনক ব্যবস্থাপক-সভার স্বষ্টি হইলে প্ৰসন্নকুমার ঐ সভার ক্লার্ক-এন্ট্রিাষ্ট্যে পদে নিযুক্ত হন ও গভর্ণমেন্টেকে জাইন-প্রণয়নে সাহায্য কন