পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৯৫১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পঞ্চবিংশ অধ্যায়। సె6 సె অতি গরীব দুঃখী ও সহায়হীন লোকই তখন এখানে চিকিৎসিত হইত। পরে এই হাসপাতালটা ধৰ্ম্মতলা-স্ত্রীটের একটা বাটাতে উঠিা আসে। (১৭৯৬ খৃঃ)। তখন ধৰ্ম্মতলা-স্ত্রীটের উপর, মোটে তিন চারিখানি তিলবট ছিল। স্যর জন শোর, গবর্ণমেণ্টের তরফ হইতে এই দেশীয় সাধারণচিকিৎসালয়ের সাহায্য জন্য, মাসিক পাচশত টাকা (অর্থসাহায্যেয় বনে বস্ত করিয়া দেন। সাধারণের নিকট সংগৃহীত টাদা দ্বারাও প্রায় অঞ্জলক্ষ টাকা উঠে। পরবর্তীকালে এই দেশীয় হাসপাতালের খরচ পত্ৰ বৃদ্ধি হওয়ায়, গবর্ণমেন্ট ইহার ব্যয় নিৰ্বাহার্থে দুই হাজার টাকা পৰ্য্যন্ত মাসিক বৃত্তি স্থির করিয়া দেন। ১৮৭১ খ্ৰীঃ অকে, এই মেও-হাসপাতাল কোন বায়ুপূর্ণ স্থানে স্থানান্তরিত করিবার প্রস্তাব উঠে। তজ্জন্য গঙ্গার ধরে বর্ধমান বাটিটর প্রাণপ্রতিষ্ঠা হয়। তদাণীন্তন গবর্ণর-জেনারেল লর্ড নর্থব্রুক, এই বাটীর ভিত্তিপ্রস্তর প্রতিষ্ঠা করেন। বাড়ীর প্লান তৈয়ারি করেন—স্বপ্রসিদ্ধ মেকিণ্টস বরণ কোং । তিন লক্ষ টাকা, এই মেও-নেটিভ হাসপাতাল বাট নিৰ্ম্মাণে ব্যয় হয় । ১৮৭৪ খ্ৰীঃ হইতে ইহ। সাধারণের ব্যবহারে আসে। এখানে প্রার দেড় শতাধিক রোগীর পঘা নিদিষ্ট আছে। পরলোকগত বড়-লাট, লর্ড মেয়োর নামে ইহা প্রতিষ্ঠিত । জুওলজিকেল গার্ডেন। জুওলজিক্যাল গার্ডেন বা আলিপুরের চিড়িয়াখানা, না দেখিয়াছেনএমন বাঙ্গালী নাই বলিলেই হয়। এমন কি, বঙ্গের কুলমহিলারা পৰ্য্যস্ত, কালাঘাট তীর্থাদি দর্শনার্থে গমন করিলে, আলিপুরের চিড়িয়াখানা না দেখিয়া বাড়ী ফেরেন না । বৰ্ত্তমানে যে স্থানে এই রাজকীয় পশুশালাটী সংস্থাপিত হইয়াছে, তাহা পুরাকালে একটা বস্তি ছিল। ইহাকে "জিরাটবা" বলিত। নিম্নশ্রেণীর মুসলমানগণই এখানকার প্রধান অধিবাসী ছিল। বহুদিন হইতেই এই কলিকাতা সহরে, একটা সরকারী-পশুশালা স্থাপনের চেষ্ট হইতেছিল। এ চেষ্টায় প্রধান উদ্যোগী ডাক্তার ক্লেয়ার ও ডাক্তার স্কোয়েগুলার ( Dr. Schwendler. ) >\>he #: **, aề বিষয়ট, বঙ্গের তদানীন্তন গবর্ণর সার রিচার্ড টেম্পলের মনোযোগ বিশেষভাবে নকৰণ করে। এজন্ত উক্ত বৎসরে, গবৰ্ণমেণ্ট এই বাগান নিৰ্ম্মাণের an anaerনর আদেশ করেন। বস্তির লোকদিগকে ক্ষতিপূরণ করিয়া