পাতা:কলিকাতা সেকালের ও একালের.djvu/৯৮৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পঞ্চবিংশ অধ্যায়।-- జ8:: সাগর বিদ্যাসাগর, এই সময়ে তাহাকে যথেষ্ট সাহায্য না কৰিলে, তিনি বড়ই বিপদে পড়িতেন। মধুসূদনের গ্রন্থাবলীর মধ্যে ‘চতুর্দশপদী কবিতাবলী" তাহার প্রবাসকালে, সুদূর ইংলণ্ডে ও ফ্রান্সে লিখিত হয়। ১৮৪৭ ঐ জন্মে, মধুসুদন ব্যারিষ্টার হইয়৷ কলিকাতায় ফিরিয়া আসেন। মধুসূদন বড়ই অপব্যয়ী ছিলেন। বুঝির সুঝিয়া চলিতে পারিতেন না। এই জন্য তাহার. ভয়ানক অর্থঙ্কচ্ছত ঘটে। ব্যারিষ্টারি কার্য্যে মধুসূদন কোন উন্নতিই করিতে পারেন নাই। পত্নী বিয়োগের পর, মধুসূদনের স্বাস্থ্য একেবারে ভাঙ্গিয়া যায়। রোগের চিকিৎসার উপযুক্ত পরিমাণ অর্থ না থাকায়, তিনি জেনারেল হাসপাতালে আশ্রয় গ্রহণ করেন। ১৮৮৩ খৃঃ অকে, ২৯এ জুন রবিবার বেল দ্বিপ্রহরের সময় তাহার জীবনান্ত হয়। মধুসূদন দরিদ্রের সন্তান ছিলেন না। কিন্তু শেষ জীবনে বাঙ্গালার এই অমর কবিকে অর্থাভাবে সাধারণ হাসপাতালে দেহত্যাগ করিতে হইয়া ছিল। মৃত্যুর পূৰ্ব্বে, মধুসূদন তাহার পুত্র-কন্যাদির ভার উাহার প্রিয়বস্তু স্বনামখ্যাত ব্যারিস্টার স্বৰ্গীয় মনোমোহন ঘোষের উপর দিয়া যান। মনোমোহন বাবুও পুত্রবৎ মেহে, মধুসূদনের পুত্র আলবার্ট নেপোলিয়ামকে প্রতিপালন করিয়াছিলেন। মধুসূদনের এই পুত্র, এখন গবর্ণমেন্টের worta Opium Agent to $5°row for মনোমোহন ঘোষ প্রমুখ মহাত্মাগণের চেষ্টায় ও সাধারণের টাঙ্গার সকিউলার রোডের সমাধিক্ষেত্রে মধুসূদনের ৰে সমাধিস্থান আছে—তাহার উপর নিম্নলিখিত প্রস্তর ফলক র্তাহার স্বতিচিহ্নরূপে সংযোজিত । - দাড়াও পথিকবর ! জন্ম যদি তব বঙ্গে, তিষ্ঠ ক্ষণকাল । এ সমাধিস্থলে, (জননীর কোলে শিশু লভয়ে যেমতি বিরাম ) মহাঁর পদে মহা নিদ্ৰাৱত দত্ত-কুলোস্তব কবি শ্ৰীমধুসূদন । যশোরে সাগরদ্বাড়ী, কবর্তৃক্ষ তীরে । জন্মভূমি, জন্মদাতা দত্ত মহামতি i . - রাজনারায়ণ নামে, জননী জাহ্নবী ৷ ! মাইকেল মধুসূদন দত্ত । ..