পাতা:কল্পদ্রুম তৃতীয় খণ্ড.djvu/৬৮০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


७१२ কল্পদ্রুম | জননীর আগমনে ত্রিলোকে আনন্দের উৎস উখিত হইয়াছে । নারদ মধুর তানে বীণা বাজাইতেছেন ; পঞ্চানন পঞ্চবদনে গান করিতেছেন ; ভৈরবে নাচিয়া নাচিয়া তাল ধরিতেছে। ভাবুক কবি ! তুমি কেন নীরব ? মুরজ বীৰ তুম্বকী লইয়া তুমিও অভিনয় ক্ষেত্রে অবতরণ কর। অন্য স্থানে প্রকৃতি দেবী যেন বৃদ্ধ হইয়াছেন ; দেহ শ্লথ হইয়াছে ; সৌন্দৰ্য্য নাই, लाव१ा माहे ; श्रtत्रद्र उदरन अखिशाब नाझे,-श्रांब्र ८द* छूबांग्र श्रृंश नाई এখানে প্রকৃতির অঙ্গে চির যৌবন ঢল ঢল করিতেছে ; বেশ ভূষায় দেহ মুসজ্জিত ; অক্ষুণ্ণ রূপের গরিমায় স্থানটকে যেন হাসাইয়া তুলিতেছে । দেখ, পতিতজনকে , উদ্ধারিতে স্বরধুনীর একবার উদাম দেখ । সাগরাভিমুখে যাইবেন, গোমুখী অতিক্রম করিলেন। জলোচ্ছাস কল্লোল কোলাহলে গিরি-প্রাকার ভেদ করিয়া পাষাণ ফুটিয়া নাচিয়া নাচিয়া পাষাণে পড়িয়া আছাড়িয়া আছাড়িয়া ফেনফুৎকারে বেগে ছুটতেছেন ; – ভুবনের সৌন্দর্য্যভাব যেন মূৰ্ত্তিমান হইয় প্রবাহের অঙ্গে অঙ্গ ঢালিয়। ভাসিয়া ভাসিয়া যাইতেছে । দ্রবময়ী গঙ্গা মর্ত্যে আসিলেন । এই শান্তপদ হৃষীকেশ আশ্রম,—ঐ পবিত্র তপোবন ক্ষেত্র। সংসারে বীতরাগ যতি ও ব্রহ্মচারিগণ এই সকল পুণ্যভূমিতে কুটার বাধিয়া তপস্যা করিতেছেন। পতিতোদ্ধারিণী গঙ্গা কবে মর্তে আসিবেন, সতৃষ্ণ নয়নে চাহিয়া দেখিতেছেন, অদূরে হরিদ্বার,—ভক্তগণ জননীর প্রতীক্ষায় উৰ্দ্ধমুখে কাতর স্বরে মা মা বলিয়। ডাকিতেছে, ভাগীরথী দ্রুতপদে সাগরাভিমুখে যাইতেছিলেন, এখানে ভক্তগণের কাতরোক্তি শুনিয়া মন্থরগামিনী হইলেন, ইঙ্গিত করিয়া বলিলেন,—বৎস! আমি অধিকক্ষণ দাড়াইতে পারিব না । তোমরা আমার সুধীসম তোয় পান কর,এই পবিত্র সলিলে অবগাহন করিয়া স্নান কর, মুক্তিলাভ করিবে । এই সঙ্কেত করিয়া গঙ্গা চলিলেন ; কিন্তু মেহের এমনি দৃঢ়বন্ধন, তাহার উৎপত্তির স্থান হইতে সাগরসঙ্গম পৰ্য্যন্ত শ্ৰোতঃস্থত্রে সংস্রব রাখিয়া গেলেন । g গঙ্গা গঙ্গোত্ৰী হইতে উৎপন্ন হইয়া গোমুখী প্রপাতে মহা আড়ম্বরে নির্গত হইতেছেন। পরে গির খণ্ডে ঘুরিতে ঘুরিতে সাহরণপুরের উত্তর ভূখণ্ডে দূেরান্ধনের পশ্চিমে আসিয়া বাহির হইয়াছেন । এই স্থান হরিদার । তৎপরে কম্বল ও মায়াপুর নগরের অঙ্গে অঙ্গ মিশাইয়া গাঢ় আলিঙ্গন করিতেছেন। এই খানে দক্ষত্ত্বহিত সতী শিব নিন্দ শুনিয়া মনোদুঃখে