পাতা:কাঙ্গালের ঠাকুর - জলধর সেন.pdf/৩৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

কাঙ্গালের ঠাকুর * v9. এই সময় একদিন সন্ধ্যার পর গোপীনাথ বিষন্ন মনে বাহিরের বৈঠকখানায় একাকী বসিয়া অাছেন, এমন সময় তঁহার মাতাঠাকুরাণী সেখানে আসিয়া বলিলেন, “গোপী, বাবা, অমন করে একেলা ব’সে আছ কেন ? ঘরে যে একটা আলোও কেউ দিয়ে যায় নাই,-সন্ধ্যাদীপ ও বুঝি cन थान श्न नाश् !” গোপীনাথ বলিলেন, “না মা, আলোর দরকার নেই, আমি এই আঁধারেই বেশ আছি।” কথাটা মায়ের বুকে বাজিল । তিনি ও যে আজ কয়দিন হইতে আঁধার দেখিতেছেন । সম্মুখে পূজা !—এতকাল মা আসিয়াছেন,-আর এ-বৎসর তাহার কোনই আয়োজন হইতেছে না,- এই কথা ভাবিয়া তিনি ও কাতর হইয়া পড়িয়াছেন। আজ সেই কথাটা উত্থাপন করিবার জন্যই তিনি গোপীনাথের নিকট আসিয়াছিলেন । কিন্তু গোপীনাথের কথা শুনিয়া সে প্রসঙ্গ তুলিতে র্তাহার ইচ্ছা! হইল না । গোপীনাথ বুঝিলেন, মাতা কোন বিশেষ কথার জন্য? আসিয়াছেন। তিনি বলিলেন, “মা, এ সময় তুমি এ দিকে এলে যে ?” মা বলিলেন, “না, তুমি কি করছ, তাই দেখতে qठभ ।” গোপীনাথ বলিলেন, “মা, এবার পূজার কি হবে ? আমি অনেক ভেবে দেখলাম, পূজা করা ত অসম্ভব ।” ی۔