পাতা:কাঙ্গালের ঠাকুর - জলধর সেন.pdf/৯৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

কাঙ্গালের ঠাকুর O তাহার পরই প্ৰতিমার সম্মুখে যাইয় গললগ্নীকৃতবাসে করযোড়ে বলিলেন “মা, তোর কাঙ্গাল ছেলেরা তোর পূজো। করবে, সেই পূজোই তোকে নিতে হবে । বল মা, পুরুতের পূজো নিবি—না কাঙ্গাল ছেলেদেরই পূজো নিবি?” এই বলিয়া মল্লিক' মায়ের মুখের দিকে চাহিলেন । কি দেখিলেন, তাহা তিনিই বলিতে পারেন। একটু পরেই বলিয়া উঠিলেন “ ওরে, আমি কি আর তা বুঝি নেই। ঐ দেখি, মা হাসছেন। ঐ দেখি, মা বলচোন— শীতল, আমি তোর পূজোই নেব।” শীতল মায়ের সম্মুখে নতজানু হইয়া প্ৰণাম করিলেন । ( ( ) গ্রামের লোকেরা মনে করিয়াছিল, মল্লিক যাহাঁই বলুক না কেন, পূজা তাহাকে করিতেই হইবে । কিন্তু অপরাহে মল্লিক। যখন ফুলতলার হাট হইতে ফিরিয়া আসিলেন, তখন দ্রব্যাদি দেখিয়া সকলেই বুদিীতে পারিল ঠাণ্ডা মল্লিকের à কথা সেই কায । তখন মহেশ ভট্টাচাৰ্য্যের বাড়ীতে থিয়েটারের যুবক দল মিলিত হইয়া ভট্টাচাৰ্য্য মহাশয়ের পরামর্শ-মত অতি গোপনে সেই বাড়ীতেই পূজার দ্রব্যাদি আহরণ করিতে লাগিল । থিয়েটারের ফাণ্ড হইতে টাকা লইয়া সুবকদল হাটে, বাজারে, নানাদিকে ছুটিল ; রাত্রি আটটা-নটার মধ্যেই "পূজার