পাতা:কাব্যগ্রন্থ (চতুর্থ খণ্ড).pdf/৩১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গীতহীন চলে’ গেছে মোর বীণাপাণি । কতদিন হ’ল সে না জানি । কি জানি কি অনাদরে বিস্মৃত ধূলির পরে ফেলে রেখে গেছে বীণাখানি । ফুটেছে কুস্তমরাজি,— নিখিল জগতে আজি আসিয়াছে গাহিবার দিন, মুখরিত দশদিক অশ্রান্ত পাগল পিক, উচ্ছসিত বসন্ত-বিপিন । বাজিয়া উঠেছে ব্যথা, প্রাণভরা ব্যাকুলতা, মনে ভরি’ উঠে কত বাণী, বসে’ আছি সারাদিন গীতিহীন স্তুতিহীন,— চলে গেছে মোর বীণাপাণি । আর সে নবীন স্বরে বীণা উঠিবে না পূরে, বাজিবে না পুরানো রাগিণী ; যৌবনে যোগিনী মত, ল’য়ে নিত্য মৌনব্রত তুই বীণা রবি উদাসিনী। কে বসিবে এ আসনে মানসকমলবনে, কার কোলে দিব তোরে আনি’,— &