পাতা:কাব্যগ্রন্থ (চতুর্থ খণ্ড).pdf/৪৫৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কণিকা পলাশ কহিল শুনি মস্তক নাড়িয়া বর্ণে আমি দিগ্বিদিক রেখেছি কাড়িয়া । গোলাপ রাভিয়া উঠি করিল জবাব গন্ধে ও শোভায় বনে আমারি প্রভাব কচু কহে গন্ধ শোভা নিয়ে খাও ধুয়ে হেথা আমি অধিকার গাড়িয়াছি ভুয়ে । মাটির ভিতরে তা’র দখল প্রচুর, প্রত্যক্ষ প্রমাণে জিৎ হইল কচুর । TAMTSTMMTT নন্দুকের তুরাশ৷ মালা গাথিবীর কালে ফুলের বেঁটায় ছুচ নিয়ে মালাকর দুবেলা ফোটায় । ছুচ বলে মনোদুঃখে ওরে জুই দিদি, হাজার হাজার ফুল প্রতিদিন বিধি, কত গন্ধ কোমলতা যাই ফুড়ে ফুড়ে কিছু তা’র নাহি পাই এত মাথা খুঁড়ে । বিধি পায়ে মাগি বর জুড়ি কর দুটি ছুচি হ’য়ে না ফোটাই, ফুল হ’য়ে ফুটি – জুই কহে নিশ্বসিয়া—আহা হোক তাই, তোমার পুরুক বাঞ্ছা, আমি রক্ষা পাই। 8S) o