পাতা:কাব্যগ্রন্থ (তৃতীয় খণ্ড).pdf/১৯০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সোনার তরী অপূর্ব গীত, অলোক ছন্দ শুনিছে নিত্য নব । বাজুক সে বীণা, মজুক ধরণী, বারেকের তরে ভুলাও জননী কে বড় কে ছোট কে দীন কে ধনী কেবা আগে কেবা পিছে, কার জয় হ’ল, কার পরাজয়, কাহার বৃদ্ধি, কার হ’ল ক্ষয়, কেবা ভালো, আর কেবা ভালো নয়, কে উপরে কেবা নীচে । গাথা হ’য়ে যাক এক গীতরবে, ছোট জগতের ছোট বড় সবে, সুখে পড়ে রবে পদপল্লবে যেন মালা একখানি । তুমি মানসের মাঝখানে আসি’ দাড়াও মধুর মুরতি বিকাশি’, কুন্দবরণ সুন্দর হাসি বীণা হাতে বীণাপাণি । ভাসিয়া চলিবে রবি শশী তারা, সারি সারি যত মানবের ধারা অনাদিকালের পাস্থ যাহারা তব সঙ্গীতস্রোতে । > Ꮔ8