পাতা:কাব্যগ্রন্থ (তৃতীয় খণ্ড).pdf/২০৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সোনার তরী এত বলি’ মালা শির হতে খুলি’ প্রিয়ার গলায় দিতে গেল তুলি”, কবিনারী রোষে কর দিল ঠেলি’ ফিরায়ে রহিল মুখ । মিছে ছল করি মুখে করে রাগ, মনে মনে তা’র জাগিছে সোহাগ, গরবে ভরিয়া উঠে অনুরাগ, হৃদয়ে উথলে সুখ। কবি ভাবে, বিধি অপ্রসন্ন, বিপদ আজিকে হেরি আসন্ন, বসি থাকে মুখ করি বিষন্ন, শূন্যে নয়ন মেলি – কবির ললনা আধখানি বেঁকে, চোরা কটাক্ষে চাহে থেকে থেকে,পতির মুখের ভাবখান দেখে মুখের বসন ফেলি’ উচ্চকণ্ঠে উঠিল হাসিয়া, তুচ্ছ ছলনা গেল সে ভাসিয়া, চকিতে সরিয়া নিকটে আসিয়া পড়িল তাহার বুকে,— সেথায় লুকায়ে হাসিয়া কাদিয়া, কবির কণ্ঠ বাহুতে বাধিয়া, >brb"