পাতা:কাব্যগ্রন্থ (তৃতীয় খণ্ড).pdf/২৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সোনার তরী তা’র পরদিনে,—আবার সাজিল সুখে নব অলঙ্কারে ; বিরচিল হাসিমুখে কবরী নূতন ছাদে বাকাইয়া গ্রীবা। পরিল যতন করি নবরৌদ্রবিভা নব পীতবাস। দর্পণ সম্মুখে ধরে’ শুধাইল মন্ত্র পড়ি’—সত্য কহ মোরে ধরামাঝে সব চেয়ে কে আজি রূপসী ! সেই হাসি সেই মুখ উঠিল বিকশি হন মুকুরে । রাণী কহিল জুলিয়া— বিষফল খাওয়ালেম তাহারে ছলিয়া, তবুও সে মরিল না সতীনের মেয়ে, ধরাতলে রূপসী সে সকলের চেয়ে ! তা’র পরদিনে রাণী কনক রতনে খচিত করিল তনু অনেক যতনে। দপণেরে শুধাইল বহু দর্পভরে— সর্ববশ্রেষ্ঠ রূপ কার বল সত্য করে । দুইটি সুন্দর মুখ দেখা দিল হাসি’ রাজপুত্র রাজকন্যা দোহে পাশাপাশি বিবাহের বেশে —অঙ্গে অঙ্গে শিরা যত রাণীরে দংশিল যেন বৃশ্চিকের মত । b"