পাতা:কাব্যগ্রন্থ (তৃতীয় খণ্ড).pdf/২৪৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জ্যোৎস্না রাত্রে চন্দ্রলোক প্রান্ত হ’তে ; তোমার অঞ্চল বায়ুভরে উড়ে এসে পুলকচঞ্চল করুক আমার তনু ; অধীর মৰ্ম্মরে শিহরি উঠুক বন মাথার উপরে চকোর ডাকিয়া যাক দূরশ্রত তান ; সম্মুখে পড়িয়া থাক তটান্ত-শয়ান —সুপ্ত নটিনীর মত—নিস্তব্ধ তটিনী স্বপ্নালসা । হের আজি নিদ্রিতা মেদিনী, ঘরে ঘরে রুদ্ধ বাতায়ন । আমি এক আছি জেগে, তুমি একাকিনী দেহ দেখা এই বিশ্বস্তুপ্তিমাঝে,—অসীম সুন্দর ত্রিলোকনন্দনমূৰ্ত্তি ! আমি যে কাতর অনন্ত তৃষায়, আমি নিত্য নিদ্রাহীন, সদা উৎকণ্ঠিত, আমি চিররাত্রিদিন আনিতেছি অৰ্ঘ্যভার অন্তর-মন্দিরে অজ্ঞাত দেবতা লাগি,—বাসনার তীরে একা বসে’ গড়িতেছি কত যে প্রতিমা আপন হৃদয় ভেঙে, নাহি তা’র সীমা । আজি মোরে কর দয়া, এস তুমি, অয়ি, অপার রহস্য তব, হে রহস্যময়ী, খুলে ফেল,—আজি ছিন্ন করে ফেল ওই > ○○