পাতা:কাব্যগ্রন্থ (তৃতীয় খণ্ড).pdf/৯৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সোনার তরী বিশ্বের অবোধ বাণী । চিরকাল ধরে’ যাহা পায় তাই সে হারায়, তবু ত রে শিথিল হল না মুষ্টি, তবু অবিরত সেই চারি বৎসরের কন্যাটির মত অক্ষুঃ প্রেমের গর্বের্ব কহিছে সে ডাকি “যেতে নাহি দিব” ; মানমুখ, অশ্রু-আঁখি, দণ্ডে দণ্ডে পলে পলে টুটিছে গরব তবু প্রেম কিছুতে না মানে পরাভব,— তবু বিদ্রোহের ভাবে রুদ্ধ কণ্ঠে কয় “যেতে নাহি দিব।” যতবার পরাজয় ততবার কহে—“আমি ভালবাসি যারে সে কি কভু আমা হতে দূরে যেতে পারে ? আমার আকাঙক্ষাসম এমন আকুল, এমন সকল-বাড়া এমন অকূল, এমন প্রবল, বিশ্বে কিছু আছে আর ?” এত বলি দর্পভরে করে সে প্রচার “যেতে নাহি দিব ।”—তখনি দেখিতে পায় শুষ্ক তুচ্ছ ধুলিসম উড়ে চলে যায় একটি নিশ্বাসে তা’র আদরের ধন,— অশ্রািজলে ভেসে যায় দুইটি নয়ন, ছিন্নমূল তরুসম পড়ে পৃথ্বীতলে হতগৰ্ব্ব নতশির —তবু প্রেম বলে "טף