পাতা:কাব্যগ্রন্থ (নবম খণ্ড).pdf/১৬২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ধূলোটা পা দিয়ে মাড়িয়ে মাড়িয়ে ফিরব তবেই আমার বেরিয়ে আসা সার্থক হবে । রথে করে নিয়ে গেলে আমাকে ফাকি দেওয়া হবে । সুরঙ্গমা। মহারাজ, তুমিও ত আজ ধূলোয় । এ পথে ত হাতী ঘোড়া রথ কারো দেখিনি । সুদৰ্শন। যখন রাণী ছিলুম তখন কেবল সোনারূপোর মধ্যেই পা ফেলেছি—আজ র্তার ধূলোর মধ্যে চলে’ আমার সেই ভাগ্যদোষ খণ্ডিয়ে নেব । আজ আমার সেই ধূলোমাটির রাজার সঙ্গে পদে পদে এই ধূলোমাটিতে মিলন হচ্চে এ সুখের খবর কে জানত । সুরঙ্গমা। রাণী মা, ঐ দেখ, পূর্বদিকে চেয়ে দেখ, ভোর হ’য়ে আসচে। আর দেরি নেই মা—তার প্রাসাদের সোনার চুড়ার শিখর দেখা যাচ্চে । গান ভোর হ’ল বিভাবরী, পথ হ’ল অবসান ! শুন ওই লোকে লোকে উঠে আলোকেরি গান । ধন্ত হ’লি ওরে পান্থ রজনী-জাগরক্লান্ত, ধন্ত হ’ল মরি মরি ধূলায় ধূসর প্রাণ । বনের কোলের কাছে সমীরণ জাগিয়াছে । >W*