পাতা:কাব্যগ্রন্থ (পঞ্চম খণ্ড).pdf/১৪১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ওই দুটি নেত্রে জ্বলে যে উজ্জ্বল শিখা সে আলোকে পড়িয়াছি বিশ্বশাস্ত্রে লিখা যেথা দয়া সেথা ধৰ্ম্ম, যেথা প্রেমস্নেহ, যেথায় মানব, যেথা মানবের গেহ । বুঝিলাম, ধৰ্ম্ম দেয় স্নেহ মাতারূপে, পুত্ররূপে স্নেহ লয় পুনঃ ;–দাতারূপে করে দান, দানরূপে করে তা’ গ্রহণ,— শিষ্যরূপে করে ভক্তি, গুরুরূপে করে আশীৰ্ব্ববাদ ; প্রিয়া হ’য়ে পাষাণতন্তরে প্রেম-উৎস লয় টানি’, অনুরক্ত হ’য়ে করে সববসমপণ । ধৰ্ম্ম বিশ্বলোক{লয়ে ফেলিয়াছে চিত্তজাল,—নিখিল ভুবন টানিতেছে প্রেমক্রোড়ে,—সে মহাবিন্ধন ভরেছে অন্তর মোর আনন্দবেদনে চাহি ওই উষারুণ করুণ বদনে । ওই ধৰ্ম্ম মোর । ক্ষেমঙ্কর আমি কি দেখিনি ওরে ? আমিও কি ভাবি নাই মুহূৰ্ত্তের ঘোরে এসেছে অনাদি ধৰ্ম্ম নারীমূর্তি ধরে’ কঠিন পুরুষমন কেড়ে নিয়ে যেতে স্বগপানে ? ক্ষণতরে মুগ্ধ হৃদয়েতে > ミa