পাতা:কাব্যগ্রন্থ (পঞ্চম খণ্ড).pdf/৪৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


লাভ, কোন এক অপরূপ নিদ্রালোকে, জনশূন্ত স্নানজ্যোৎস্না বৈতরণীতীরে। দাড়ানু উঠিয়া । মিথ্যা সরম সঙ্কোচ খসিয়া পড়িল শ্লথ বসনের মত পদতলে । শুনিলাম, “প্রিয়ে, প্রিয়তমে !” গম্ভীর আহবানে, জন্ম জন্ম শত জন্ম মোর, উঠিল জাগিয়া এক দেহ মাঝে । কহিলাম, “লহ, লহ, যাহা আছে, সব লহ জীবনবল্লভ ।” দিলাম বাড়ায়ে, দুই বাহু –চন্দ্র অস্ত গেল বনান্তরে, অন্ধকারে বাপিল মেদিনী । স্বগ মর্ত্য দেশকাল দুঃখস্থখ জীবন মরণ অচেতন হ’য়ে গেল অসহ পুলকে । প্রভাতের প্রথম কিরণে, বিহঙ্গের প্রথম সঙ্গীতে, বাম করে দিয়া ভর ধীরে ধীরে উঠিয়া বসিলু শয্যাতলে । দেখিলু চাহিয়া, সুখস্থপ্ত বীরবর। শ্রান্ত হাস্য লেগে আছে ওষ্ঠপ্রান্তে র্তার প্রভাতের চন্দ্রকলাসম, রজনীর r আনন্দের শীর্ণ অবশেষ । নিপতিত উন্নত ললাট-পটে অরুণের আভা ; মর্ত্যলোকে যেন নব উদয়পবর্বতে S) o