পাতা:কাব্যগ্রন্থ (ষষ্ঠ খণ্ড).pdf/২২৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চেয়ে দেখি জানালায় খালখানা শুষ্কপ্রায় মাঝে মাঝে বেধে আছে জল, এক ধারে রাশ রাশ অৰ্দ্ধমগ্ন দীর্ঘ বাশ, তারি পরে বালকের দল । ধরে মাছ মারে ঢেলী সারাদিন করে খেলা উভচর মানবশাবক । মেয়েরা মাজিছে গাত্র অথবা কাসার পাত্র সোনার মতন ঝক ঝক । উত্তরে যেতেছে দেখা পড়েছে পথের রেখা শুষ্ক সেই জলপথ মাঝে, বহু কষ্টে ডাক ছাড়ি চলেছে গরুর গাড়ি ঝিনি ঝিনি ঘণ্টা তারি বাজে । কেহ দ্রুত কেহ ধীরে কেহ যায় নতশিরে, কেহ যায় বুক ফুলাইয়া, কেহ জীর্ণ টাউ, চড়ি চলিয়াছে তড়বড়ি দুই ধারে তং পা দুলাইয়া । পরপারে গায়ে গায় অভ্ৰভেদী মহাকায় স্তব্ধচ্ছায় বট অশ্বথেরা ; স্নিগ্ধ বন-অঙ্কে তারি সুপ্তপ্রায় সারি সারি কড়েগুলি বেড়া দিয়া ঘেরা। বিহঙ্গে মানবে মিলি আছে হোথা নিরিবিলি ঘনশুমে পল্লবের ঘর ; সন্ধ্যেবেলা হোথা হ’তে ভেসে আসে বায়ু-স্রোতে গ্রামের বিচিত্র গীত-স্বর ।