পাতা:কালমৃগয়া - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দশরথ । দশরথ । দশরথের প্রবেশ না জানি কোথা এলুম, এ যে ঘোর বন । কোথা গেল সে করী-শিশু, কোথা লুকাল একে তো জটিল বন, তাহে আঁধার ঘন ! যাক না যাবে সে কত দূর কত দূর— যাব পিছে পিছে, না না না না ও কী শুনি ! ওই সে সরযু-তীরে করিছে সলিল পান, শবদ শুনি যে ওই, এই তবে ছাড়ি বাণ ! নেপথ্যে বনদেলীগণ হায় কী হল ! হায় কী হল ! বাণাহত ঋবিকুমারের নিকট দশরথের গমন কী করিচু হায় ! এ তো নয় রে করী-শিশু । ঋষির তনয় । নিঠুর প্রখর বাণে রুধিরে আপ্লুত কায়, কার রে প্রাণের বাছা ধুলাতে লুটায় ! কী কুলগ্নে না জানি রে ধরিলাম বাণ, কী মহাপাতকে কার বধিলাম প্রাণ ! দেবতা, অমৃতনীরে হারা-প্রাণ দাও ফিরে, নিয়ে যাও মায়ের কোলে মায়ের বাছায় ! মুখে জলসিঞ্চন ঋষিকুমার । কী দোষ করেছি তোমার, কেন গো হানিলে বাণ ।