পাতা:কালান্তর - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১০১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ছোটো ও বড়ো করিয়াই পশ্চিমের ঘাটের দিকে অত বেশি কলরব করিতে করিতে ছুটিয়ে না । এই আশঙ্কাটাকেও মনে রাখিয়ে যে, ভারতসাগরের তলায় তলায় ছোটো-ইংরেজের মাইন সার বাৰিয়া আছে। এটা অসম্ভব নয় যে, তোমার ভাগ্যে জাহাজের যে ভাঙা কাঠ আছে সেটা স্বাধীনশাসনের আস্ত্যেষ্টিসৎকারের কাজে লাগিতে পারে । তার পরে লোনা জলে পেট ভরাইয়া ভাঙায় উঠিতে পারিলেই আমাদের অদৃষ্টের কাছে কৃতজ্ঞ থাকিৰ । দেখিতে পাই, বড়ো-ইংরেজের দাক্ষিণাকেই চরম সম্পদ গণ্য করিয়া আমাদের লোকে চড়া চড়া কথায় ছোটো-ইংরেজের মুখের উপর জবাব দিতে শুরু করিয়াছেন । ছোটো-ইংরেজের জোর যে কতটা খেয়াল করিতেছেন না । ভুলিয়াছেন, মাঝখানের পুরোহিতের মাখুলি বরাদের পাওনা উপরের দেবতার বরকে ৰিকাইয়া দিতে পারে । এই মধ্যবর্তীর জোর কতটা এবং ইহাদের মেজাজটা কী ধরনের সে কি বারে বারে দেখি নাই ? ছোটো-ইংরেজের eোর কত সেটা যে কেবল আমরা লর্ড রিপনের এবং কিছু পরিমাণে লর্ড হার্ডিঞ্জের আমলে দেখিলাম তাহা নহে, আর-এক দিন লর্ড ক্যানিং এবং লর্ড বেটিঙ্কের অমিলে ও দেখা গেছে । তাই দেশের লোককে বার বার বলি, “কিসের জোরে স্পর্ধা ৰুর ? গায়ের জোর ? তাহ তোমার নাই। কণ্ঠের জোর ? তোমার যেমনি অহংকার থাকলেও তোমার নাই। মুফকির জোর ? লেও তো দেখি না । যদি ধর্মের জোর থাকে তবে তারই প্রতি সম্পূর্ণ ভরসা রাখে। স্বেচ্ছাপূর্বক দুঃখ পাইবার মহৎ অধিকার হইতে কেহ তোমাকে বঞ্চিত করিতে পরিবে না । সত্যের জন্ত, স্তায়ের জন্ত, লোকশ্রেয়ের জন্য আপনাকে উৎসর্গ করিবার গোঁৱৰ দ্বর্গম পথের প্রান্ডে তোমার জন্ত অপেক্ষ। कब्रिटडरझ ।' वव्र पनेि लाहे ठट्व चखर्दांबैौश्व कांझ् इहेष्ठ नादेव । 2O