পাতা:কালান্তর - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১০৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কালাস্তুর দরবারে এখনো পথের বিচার শেষ হয় নাই সে কথা মনে রাখিতে रुहे८व । चांद्र बांश झलणांउहे ८ष छब्रय लाख ७ कपी गयख शृथिवैौ षणि মানে তবু ভারতবর্ষ যেন না মানে— বিধাতার কাছে এই বর প্রার্থন করি, তার পর পোলিটিকাল মুক্তি যদি পাই তো ভালো, যদি না পাই তবে তার চেয়ে বড়ো মুক্তির পথকে কলুষিত পলিটিক্সের আবর্জনা দিয়া বাধাগ্রস্ত করিব না । কিন্তু একটা কথা ভুলিলে চলিবে না যে, দেশভক্তির আলোকে বাংলাদেশে কেবল যে চোর-ডাকাতকে দেখিলাম তাহা নহে, বীরকেও দেখিয়াছি। মহৎ আত্মত্যাগের দৈবী শক্তি আজ আমাদের যুবকদের মধ্যে যেমন সমুজ্জল করিয়া দেখিয়াছি এমন কোনো দিন দেখি নাই। ইহার ক্ষুদ্র বিষয়বুদ্ধিকে জলাঞ্জলি দিয়া প্রবল নিষ্ঠার সঙ্গে দেশের সেবার জন্ত সমস্ত জীবন উৎসর্গ করিতে প্রস্তুত হইয়াছে। এই পথের প্রাস্তে কেবল যে গবর্মেন্টের চাকরি বা রাজসন্মানের আশা নাই তাছা নহে, ঘরের বিজ্ঞ অভিভাবকদের সঙ্গেও বিরোধে এ রাস্ত কণ্টকিত । আজ সহসা ইহাই দেখিয়া পুলকিত হইয়াছি যে, বাংলাদেশে এই ধনমানহীন সংকটময় ছুর্গম পথে তরুণ পথিকের অভাব নাই । উপরের দিক হইতে ভৰি আসিল, আমাদের যুবকের সাড়া দিতে দেরি করিল না ; তার মহং ত্যাগের উচ্চ শিখরে নিজের ধর্মবুদ্ধির সম্বল মাত্র লইয়া পৰ কাটিতে কাটিতে চলিবার জন্ত দলে দলে প্রভত হইতেছে। ইহার কংগ্রেসের দরখাস্তপত্র বিছাইয়া আপন পথ মুগম করিতে চায় নাই ; ছোটো-ইংরেজ ইহাদের শুভ সংকল্পকে ঠিকমতো বুঝিবে কিম্বা হাত তুলিয়া আশীৰ্বাদ করিবে, এ ছত্রাশও ইহারা মনে রাখে নাই। অe সৌভাগ্যবান দেশে, যেখানে জনসেবার ও দেশসেবার বিচিত্র পথ প্রশস্ত হইয়া দিকে দিকে চলিয়া গেছে, ৰেখানে শুভ ইচ্ছা এবং শুভ ইচ্ছার ক্ষেত্র এই দুইয়ের মধ্যে পরিপূর্ণ যোগ আছে, সেইখানে এই রকমের Gy