পাতা:কালান্তর - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২৬৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কালাস্তুর এলিয়ার মধ্যে এই শূদ্র ভারতবর্ষের কী কাজ ? তখন সে যুরোপের কামারশালায় তৈরি লোহার শিকল কাধে ক’রে নির্বিচারে তার প্রাচীন বন্ধুকে বাধতে যাবে । সে মারবে, সে মরবে। কেন মারবে, কেন মরবে, এ কথা প্রশ্ন করতে তার ধর্মে নিষেধ। সে বলবে : স্বধর্মে হননং শ্ৰেয়ঃ, স্বধর্মে নিধনং শ্রেয়ঃ । ইংরেজসাম্রাজ্যের কোথাও সে সম্মান চায়ও না, পায়ও না ; ইংরেজের হয়ে সে কুলিগিরির বোঝা বয়ে মরে, ষে বোঝার মধ্যে তার অর্থ নেই, পরমার্থ নেই ; ইংরেজের হয়ে পরকে সে তেড়ে মারতে যায়, যে পর তার শত্রু নয় ; কাজ সিদ্ধ হবা মাত্র আবার তাড়া খেয়ে তোষাখানার মধ্যে ঢোকে। শূদ্রের এই তো বহু যুগের দীক্ষা । তার কাজে স্বার্থও নেই, সন্মানও নেই, আছে কেবল ‘স্বধর্মে নিধনং শ্রেয়ঃ’ এই বাণী । নিধনের অভাব হচ্ছে না ; কিন্তু তার চেয়েও মামুষের বড়ো দুৰ্গতি আছে যখন সে পরের স্বার্থের বাহন হয়ে পরের সর্বনাশ করাকেই অনায়াসে কর্তব্য ব'লে মনে করে । অতএব এতে আশ্চর্যের কথা নেই যে, যদি দৈবক্রমে কোনো দিন ব্রিটানিয়া ভারতবর্ষকে হারায় তা হলে নিশ্বাস ফেলে বলবে : I miss my best servant. অগ্রহায়ণ ১৩৩২ Հ Յt,