পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/১৩২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


     বিশ্বরূপে বিশালাক্ষি বিদ্যাং দেহি নমোহস্তুতে।।
 
 কি করিব কি হইবে চিন্তে মনে মন।
 হেনকালে এল তথা দুষ্ট মন্ত্রীগণ।।
 দুঃশাসন কর্ণ আর শকুনি দুর্ম্মতি।
 বিচারিয়া কহে কথা অন্ধ রাজা প্রতি।।
 ক্ষণেক চিন্তিয়া বলে অম্বিকানন্দন।
 কিমতে বাহি করি পাণ্ডুপুত্রগণ।।
 যখন আছিল পাণ্ডু পৃথিবীতে রাজা।
 সেবকের প্রায় মম করিত সে পূজা।।
 নাম মাত্র রাজা সেই আমি দিলে খায়।
 নিরবধি সমর্পয়ে যাহা যথা পায়।।
 মম আজ্ঞাবর্তী হয়েছিল অনুক্ষণ।
 ভাই হ'য়ে কারো ভাই না হবে এমন।।
 তাহার অধিক হয় তার পুত্রগণ।
 আজ্ঞাবর্ত্তী হৈয়া মম থাকে অনুক্ষণ।।
 দেবপ্রায় আমারে পূজেন যুধিষ্ঠির।
 কোন দোষ দিয়া তারে করিব বাহির।।
 পিতৃ পিতামহ তার পুষিল সবারে।
 কার শক্তি হয় বল দূর করিবারে।।
 দুর্য্যোধন বলে যাহা কহিলে প্রমাণ।
 পূর্ব্বে আমি জানিয়া করিলাম বিধান।।
 যত রথী মহারথী আছে ভ্রাতৃগণ।
 সবারে করিব বশ দিয়া বহু ধন।।
 সেবকগণের প্রতি নাহিক বিচার।
 নিশ্চয় বুঝিয়া কর্ম্ম করহ আমার।।
 নগর বারণাবত দেশের বাহির।
 ভ্রাতৃ মাতৃ সহ তথা যাক যুধিষ্ঠির।।
 এথা আমি নিজ রাজ্য স্ববশ করিলে।
 এস্থানে আসিবে পুনঃ কতদিন গেলে।।
 ধৃতরাষ্ট্র বলেন করিলা যে বিচার।
 নিরবধি এই চিত্তে জাগয়ে আমার।।
 পাপ কর্ম্ম বলি ইহা প্রকাশ না করি।
 গুপ্তে রাখিলাম লোকাচারে বড় ডরি।।
 ভীষ্ম দ্রোণ কৃপ বিদুরের ধর্ম্মচিত।
 এ কথা স্বীকার না করিবে কদাচিত।।
 এই চারিজন যদি নহিবে স্বীকার।
 কার্য্যসিদ্ধি হইবেক কেমন প্রকার।।
 এত শুনি পুনরাপি বলে দুর্য্যোধন।
 তাহার যেমন ভীষ্ম আমার তেমন।
 অশ্বত্থমা গুরুপুত্র মম অনুগত।
 দ্রোণ কৃপ সহ অশ্বত্থমার সম্মত।।
 বিদুর সর্ব্বাংশে সেবা করে পাণ্ডবেরে।
 হইলে সহজে একা কি করিতে পারে।।
 তুমি ত চিন্তহ পিতা উপায় ইহার।
 পাণ্ডব থাকিতে নিদ্রা নাহিক আমার।।
 ধৃতরাষ্ট্র বলে যদি করি দূর তারে।
 অপযশ ঘুষিবেক সকল সংসারে।।
 এমন উপায় করি করহ মন্ত্রণা।
 আপন ইচ্ছায় যায় নগর বারণা।।
 এত শুনি দুর্য্যোধন চলিল সত্বর।
 নানা রত্ন লৈয়া গেল মন্ত্রীগণ ঘর।।
 তবে দুর্য্যোধন দিয়া বিবিধ রতন।
 ক্রমে ক্রমে বশ করে সব মন্ত্রীগণ।।
 শিখাইল মন্ত্রীগণে কপট করিয়া।
 নগর বারণাবত উত্তম বলিয়া।।
 সর্ব্বক্ষণ কহ সবে যাহাকে তাহাকে।
 নগর বারণা সম নাহি ইহলোকে।।
 দুর্য্যোধন দুর্ম্মতি পাইয়া মন্ত্রীগণে।
 সেইমত বলিতে লাগিল অনুক্ষণে।।
 কতদিনে হৈল শিবরাত্রি চতুর্দ্দশী।
 রাজার নিকটে সব মন্তীগণ বসি।।
 নগর বারণাবত পুণ্যক্ষেত্র গণি।
 প্রত্যক্ষ বৈসেন তথা দেব শূলপাণি।।
 আর মন্ত্রী বলে সে জগৎ মনোরম।
 নগর বারণাবত ভূবনে উত্তম।।
 আর মন্ত্রী বলে তার নাহিক তুলনা।
 অমর কিন্নর তথা থাকে সর্ব্বজনা।।
 হেনমতে মন্ত্রীগণ বলেন বচন।
 বিধির লিখন কর্ম্ম না হয় খণ্ডন।।
 যুধিষ্ঠির বলেন সে পুণ্যক্ষত্রবর।
 দেখিব বারণাবত কেমন নগর।।
 এত শুনি ধৃতরাষ্ট্র আনন্দিত মন।
 হৃদয়ে কপট মুখে অমৃত বচন।।