পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/১৯১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


     স ভুমিং সর্ব্বতঃ স্পৃষ্ট্বা অত্যতিষ্ঠদ্দশাঙ্গুলম্।।
 আপনার হিতাহিত বিচার কারণ।
 ধৃতরাষ্ট্র আনিয়াছে সব মন্ত্রীগণ।।
 সে কারণে হিতকথা চাহি কহিবার।
 শুনহ ক্ষত্রিয়গণ মম যে বিচার।।
 ধর্ম্ম অর্থ যশ শ্রেয় সবার কল্যাণ।
 সব কহিলেন গঙ্গাপুত্র মতিমান্।।
 এক্ষণে এই কর্ম্ম করহ ভূপাল।
 প্রিয়ম্বদ দূত এক পাঠাও পাঞ্চাল।।
 বিবাহ-সামগ্রী লৈয়া মঙ্গল বাজন।
 নানা অলঙ্কার দ্রব্য করিয়া সাজন।।
 দ্রৌপদীরে তুষিবে বিবিধ অলঙ্কারে।
 নানা ধনে তুষিবেক পঞ্চ সহোদরে।।
 পুনঃ পুনঃ সন্তোষিয়া কুন্তীরে কহিবে।
 যেন পূর্ব্ব দুঃখ স্মরি দুঃখী না হইবে।।  
 দ্রুপদ রাজার জন্য দেহ বহুধন।
 প্রত্যক্ষ করিবে তাহা সব পুত্রগণ।।
 হেন জন পাঠাও সুশীল সত্যবাদী।
 পাণ্ডব তোমাতে যেন না হয় বিবাদী।।
 এত বাক্য যদি বলিলেন ভীষ্ম দ্রোণ।
 ক্রোধমুখে উত্তর করিল বৈকর্ত্তন।।
 ভাল মন্ত্রী আনিলা মন্ত্রণা করিবারে।
 সবাই শত্রুর অংশ খ্যাত এ সংসারে।।
 মুখেতে সুহৃদ্ তব অন্তরেতে আন।
 যে কহিল বুঝহ করিয়া অনুমান।।
 ধন জন সম্পদ এ সংসার ভিতরে।
 সবাকারে দিয়াছ না দিয়াছ কাহারে।।
 তথাপি পাণ্ডব অংশ তোমার অহিত।
 জিহ্বায় অন্তরবার্ত্তা হৈতেছে বিদিত।।
 রাজা হৈয়া যেই জন আপনা না বুঝে।
 দুষ্ট মন্ত্রী মন্ত্রণাতে সবংশেতে মজে।।
 শুনি ক্রোধে বলে ভরদ্বাজের কুমার।
 ওরে দুষ্ট শুনি কহ কি তোর বিচার।।
 কলহ করিতে প্রায় চাহ সবা সহ।
 নিকট বাঞ্ছহ প্রায় যাইতে যমগৃহ।।
 ভালমতে জনি আমি তোমা বীরপণা।
 দেখিল পাঞ্চাল রাজ্যে তাহা সর্ব্বজনা।।
 লক্ষ রাজা সহ একা বেড়িল অর্জ্জুনে।
 পলাইয়া গেলে তেঁই রহিলা জীবনে।।
 কিমতে কহিব আমি এমত বিচার।
 মহাকুল ক্ষয় হবে সবার সংহার।।
 এত শুনি বিদুর বলেন মহামতি।
 কি হেতু নিঃশব্দ হৈয়া আছহ নৃপতি।।
 আপনি না বুঝ কেন করিয়া বিচার।
 ভীষ্মদ্রোণ সম হিত কে আছে তোমার।।
 এ দোঁহার গূণে কেবা ছে ভূমণ্ডলে।
 বিচারে অমরগুরু তেজে অখণ্ডলে।।
 ধর্ম্মের সাক্ষাৎ ধর্ম্ম ত্রিভুবনে খ্যাত।
 শীলতায় পূর্ব্বে যেন ছিল রঘুনাথ।।
 কভু নাহি তব মন্দ ভীষ্মমুখে ভাষে।
 সর্ব্বদা তোমার হিত সর্ব্বলোকে ঘোষে।।
 এ দোঁহার বাক্য ঠেলে দুষ্ট অধোগামী।
 কি কারণে উত্তর না দেহ রাজা তুমি।।
 কলহ করিতে চাহ বুঝি নরপতি।
 কে তোমার যু্ঝিবেক অর্জ্জুন সংহতি।।
 এই কর্ণ দুর্য্যোধন সসৈন্য সংহতি।
 পাঞ্চালেতে ছিল এক লক্ষ নরপতি।।
 সবারে করিল জয় পার্থ একেশ্বর।
 শুনিয়া থাকিবে যে করিল বৃকোদর।।
 অস্ত্রহীন বৃক্ষ লৈয়া প্রবেশিয়া রণ।
 এক লক্ষ নৃপ-সৈন্য করিল মথন।।
 এক্ষণে সহায় হবে সেই রাজগণ।
 স্ব অস্ত্রে করিবে যুদ্ধ ভাই পঞ্চজন।।
 সহায় সর্ব্বস্ব যার মন্ত্রী জগৎপতি।
 আর যত যদুগণ বৈসে দ্বারাবতী।।
 মাতুল নন্দন বলভদ্র সখা যার।
 শ্বশুর দ্রুপদ সহ যতেক কুমার।।
 বিশেষ তোমার দেখ যত রথিগণ।
 ভালমতে জান কিবা সবাকার মন।।
 আমি জানি সবে হবে পাণ্ডব সহায়।
 দ্বন্দ ইচ্ছা কর তুমি কার ভরসায়।।
 আর বার্ত্তা তুমি নাহি জান নরপতি।
 রাজ্যের যতেক লোক করয়ে যুকতি।।