পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/২৬৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বনপর্ব। ] করুণামৃত বর্ষিনীং হরিহর-ব্রহ্মাদিভিবন্দিতাং । రిఫిన পৃথিবীকে ধরিয়াছে ক্ষমাৱন্ত জনে । জাম সম জন, ক্ষম ত্যজিবে কেমনে ॥ স কারণে দ্রৌপদী ত্যজহ ক্রোধমন । wভ অশ্বমেধ ফল অক্রোধী যে জন ॥ দুৰ্য্যোধন না ক্ষমিল, আমি না ক্ষমিব ! এইক্ষণে কুরুবংশ সকল মজাব ॥ কুরুবংশে দেখ দেবি মম পুণ্যভার । মহাক্রোধ হৈলে বংশ হইবে সংহার ॥ খ্ৰীষ্ম দ্রোণ বিদুরাদি বুঝাইবে সবে । সবাকার দুর্য্যোধন নহিবেক যবে ৷ আপনার দোষে তারা হইবে সংহার । পূর্বে করিয়াছি আমি এমন বিচার ॥ কৃষ্ণ বলে সেই বিধাতারে নমস্কার । যই জন হেন রূপ করিল সংসার ॥ সষ্ট ক্রন বাহা করে সেই মত হয় । মনুষ্যের শক্তিতে কিছুই সাধ্য নয় ॥ নস্থ দম তপ ব্ৰত বহু আচরিল। দ্বজসেব দেবপুজা কতই করিল ৷ দক্ ধিক্ বিধি তার কৈল হেন গতি । সম্ম হত পঞ্চভাই পাইল দুৰ্গতি ॥ পৰ্ম্ম হেতু সব ত্যজি আইলে বনেতে । ১ারি ভাই আমাকেও পারস্থ ত্যজিতে ॥ তথাপিও ধৰ্ম্ম নাছি ত্যজিবে রাজন । প্রণয্যর সহিত যেন ছায়ার গমন ॥ মই জন ধৰ্ম্ম রথে তীরে ধৰ্ম্ম রাখে । নাহিক সন্দেহ শুনিয়াছি ব্যাসমুখে ॥ মারে না রাখে ধৰ্ম্ম কিসের কারণে ; খ্ৰীষ্টত বিস্ময় খদ লয় মম মনে ॥ তামরি যতেক ধৰ্ম্ম বিখ্যাত সংসার । সর্বব-ক্ষিতীশ্বর হয়ে নাহি অহঙ্কার ॥ লক্ষ লক্ষ ব্রাহ্মণ কণক পাত্রে ভুঞ্জে । আমি করি পরিচর্য্য সেবা হেতু দ্বিজে ॥ দ্বিজেরে স্বর্ণ পাত্র দিতাম আজ্ঞামাত্রে । এখন বনের ফল ভুঞ্জ বনপত্রে ॥ রাজসূয় অশ্বমেধ সুবর্ণ গো সব , শfর সব বহু যজ্ঞ দান মহোৎসৰ ॥ সে সব করিতে বুদ্ধি হইল তোমায়। সৰ্ব্বস্ব হারিলে তুমি কপট পাশায় ॥ যে বনের মধ্যে রাজা চোর নাহি থাকে । তথায় নিযুক্ত বিধি করিল তোমাকে ॥ এখন সে ধৰ্ম্ম তুমি করিবে কেমনে । রাজ্যহীন ধনহীন বসতি কাননে ॥ ধিক্ বিধাতারে এই করে হেন কৰ্ম্ম । দুষ্টাচার দুৰ্য্যোপন করিল আজন্ম ॥ তাহারে নিযুক্ত কেন পৃথিবীর ভোগ । তোমারে করিল বিধি এমন সংযোগ ॥ যুধিষ্ঠির কহে কৃষ্ণ উত্তম কহিলে । কেবল করিলে দোস ধৰ্ম্মেরে নিন্দিলে ॥ কৰ্ম্ম করি যেইজন ফলাকাঙক্ষী হয় । বণিকের মত সেই বাণিজ্য করয় ॥ ফললোভে ধৰ্ম্ম করে লুব্ধ বলি হারে । লোভে পুনঃ পুনঃ পড়ে নরক ভিতরে ৷ এষ্টত সংসার সিন্ধু উৰ্ম্মি কত তায় । হেলে তরে সাধুজন ধৰ্ম্মের নৌকায় ॥ ধৰ্ম্ম কৰ্ম্ম ফলাকাঙক্ষ নাহি সেই করে । ঈশ্বরেতে সমপিলে অবহেলে তরে ॥ ধৰ্ম্মফল বাঞ্ছা করি ধৰ্ম্মগৰ্ব্ব করে ! ধৰ্ম্মেরে করিয়া নিন্দ অপৰ্ম্ম আচরে ॥ এই সব জনেরে পশুর মধ্যে গণি । বৃথা জন্ম যায় তার পায় পশুযোনি ॥ ধৰ্ম্মশাস্ত্র বেদ নিন্দ করে যেইজন । তিৰ্য্যগের মধ্যে তীরে করযে গণন । পুনঃ পুনঃ তিৰ্য্যগ-যোনিতে জন্ম হয় নরক হইতে তার কভু পার নয় । শিশু হ’য়ে ধৰ্ম্ম আচরয়ে যেইজন । বৃদ্ধের ভিতর তারে করয়ে গণন । প্রত্যক্ষ দেখহ কৃষ্ণ ধৰ্ম্ম যাহা কৈল । সপ্ত বৎসরের আয়ু মার্কণ্ডের ছিল ৷ ধৰ্ম্মবলে সপ্তকল্প জীয়ে দুনিরাঙ্ক । আর যত দেখ মুনি ঋষির সমাজ ॥ মুখে যাহা কহে তাহা হয় সেইক্ষণে । ধৰ্ম্মবলে ভ্ৰমিবারে পারে ত্রিভুবনে ?