পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/২৬৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


-------------سسس-تی-تی-تی Pi— orর কেবল ভাই তোমার ভরসা । ... তুমি উদ্ধারিবে করিয়াছি আশী ॥ - সবারে জিনিতে হইল উপদেশ । ং তপ কর গিয়া সেবহ মহেশ ॥ :ড় বিদ্যা আমারে দিলেন পিতামহ । কপি ত্বরিতে মিলহ শিব সহ ॥ আদি দেবগণ দিবুেন দর্শন । সবারে সেবিয়া পাইবে অস্ত্ৰগণ ॥ সূর্বে বু ত্রাস্ত্রর হেতু যত দেবগণ । =ঞ্জ নিড় অস্ত্র ইন্দ্রে দিল সৰ্ব্বজন । Fব অস্ত্র পাবে ইন্দ্র তুষ্ট করাইলে । মঞ্চত্ৰ হুইবে জয় শিবেরে ভজিলে ॥ ঙ্গিমালয় গিরি তাজি করছ গমন । নকটে তথায় দেখা দিবে ত্ৰিলোচন ॥ এর বলি দিব্য বিদ্যা দিয়া সেইক্ষণ । আশা করিয়া শিরে করেন চুম্বন ॥ অজ্ঞ পুয়ে বাহির হলেন ধনঞ্জয় । ‘’ ‘’ব নিলেন তুণ যুগল অক্ষয় ॥ চলিলেন ধনঞ্জয় উত্তর যুগেতে । হয়দিনে উত্তরেল হিমাদ্রিম্পর্ববতে ॥ গুমন্দ্রির পর গন্ধমাদন ভূধর । চন্দ্ৰক’ল গিরি হয় তাহার উত্তর ॥ <ই দুঃখে তথ{য় গেলেন ধনঞ্জয় । * ifণ হৈল হেথা করহ আশ্রয় i মঃ পথ নাহি আছে মনুষ্য যাইতে ! শুন পার্থ মহাবীর রছিল তথাতে ॥ ইনকালে দেখিলেন জটিল তপস্বী । মগজুনেরে বলিলেন নিকটেতে আসি ॥ ক তুমি কবচ খড়গ ধনু অস্ত্র ধরি । * ,হতু আইলে তুমি পৰ্ব্বত উপরি ॥ * স্বত্র ফেলহ, ফেলহু সব ভুণ । ° বাগতি পেলে অস্ত্র কোন প্রয়োজন ॥ ইউ তেজোবন্ত তুমি এলে সে কারণ । শুনিয় নিঃশব্দ হৈয়া রছেন সর্জন ॥ উত্তর না পাইয়া বলয়ে জটাধর । শর মাগ ধনঞ্জয় আমি পুরন্দর ॥

কপর্ব ] প্ৰণাম মন্ত্ৰ—দ্বিভূজাং স্বর্ণবর্ণভাং রামলোকন-তৎপরাং । ৩৩১ করযোড়ে অর্জুন মাগেন বর দান । কৃপা যদি কর তবে দেহ ধনুর্ববাণ ॥ ইন্দ্র বলে হেথা আসি কি কাজ অস্ত্রেতে । দেবত্ব লইয়! ভোগ করহ স্বগেতে ॥ পার্থ বলিলেন যদি ইন্দ্রপদ পাই । তথাপি ত্যজিতে আমি নারি চারিভাঙ্গ ॥ অস্ত্র দেহ পুরন্দর কৃপা করি মলে । ইন্দ্র বলে আগে সিদ্ধ কর ত্রিলোচনে ॥ কিরাতরূপে ২ রপাঞ্চল ষ্টার আগমন হিমালয় গিরিপরে ইন্দ্রের নন্দন । করেন তপস্যা আরাধিতে ত্ৰিলোচন ॥ গলিত রক্ষের পত্র ভক্ষ্য পক্ষান্তর । কতদিনে মাসেকেতে খান একবার ॥ কতদিন দুই চারি মাস একদিনে । কতদিন অর্জুন থাকেন বায়ুপানে ॥ এক পদাঙ্গুলিতে রহেন দtণ্ডfইয়৷ ৷ উদ্ধ দুই বাহু করি নিরালম্ব হৈয়৷ ৷ র্তার তপে তাপিত হুইল গিরিবাস : গন্ধৰ্ব্ব চারণ সিদ্ধ যত মহাঋধি ॥ হরের চরণে নিবেদিল গিয়া সব । হিমালয়ে কেমনে থাকিব বল ভব ॥ পৰ্ব্বত তাপিত দেব অর্জুনের তপে । আজ্ঞা কর আমির রহিব কোনরূপে ॥ গিরিশ বলেন সবে যা ও নিজtশ্রয়ে । আমি বর দিয়া শান্ত করি ধনঞ্জয়ে ॥ এত বলি মেলানি দিলেন সৰ্ব্বনে । মায়ায় কিরাতরূপ ধরেন তখন ॥ কিরাত-স্মৃহিণীরূপ নগেন্দ্রনন্দিন । সেরূপ হুইল সব তাহার সঙ্গিনী ॥ জয়ন্তা নামেতে ধৰ্ম্ম পৃষ্ঠে শরাসন । অৰ্জ্জুনের সম্মুখে গেলে ত্ৰিলোচন ॥ হেনকালে এক মছ; বরাহু আইল । গৰ্চিয় অর্জুন পানে ত্বরিত ধাইল । বরাহ দেখিয়া পার্থ গাণ্ডাব লষ্টয় । সন্ধান পূরেন ধমুগুণ টঙ্কারিয়া ॥