পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/২৮৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Foll ক্লাব প্রভু মম বিশাল লোচন । তর বুধ ভুজ অৰ্দ্ধাঙ্গ বসন ॥ মিছ মহাতেজ বনের ঈশ্বর । র বুড়ান্ত যত তোমার গোচর ॥ কচ প্ৰাণনাথ গেল কোন দিকে । মীর স্থানে এই ভিক্ষা মাগে ॥ স্থার কে সহ। সরিৎ দেখিল । rম কfরয় ভারে ভৈমী জিজ্ঞাসিল ॥ লুণী কহিয়া স্বামীর সমাচার । করছ তুমি হৃদয় আমার ॥ বিশেষ শ্রমে আকুল শরীর । *নে ত্যাসিয়াছিলেন তব তীর ॥ চৈতে গেল ভৈমী না পেরে উত্তর । উচ্চতর এক দেখে গিরিবর ॥ বে জিজ্ঞাসে ভৈমী করিয়া ক্ৰন্দন । উচ্চতর শৃঙ্গ পরশে গগন ॥ র তব দৃষ্টি যায় শৈলবর । স’রে কোপায় আছেন প্ৰাণেশ্বর ॥ সেন হত প্রভু নিষধ-ঈশ্বর। দল কি প্রাণনাথে কহ গিরিবর ॥ সৈতে চলিলেন উত্তর মুখেতে । . র আশ্রমে যান তৃতীয় দিনেতে ॥ গর বাতাহারী দীর্ঘ গোপ দাড়ি । পদ সপবং নখ যেন বেড়ি ॥ দময়ন্তা তারে ভূমিষ্ঠ হইয়া । ' করিয়া রহে অগ্রে দাড়াইয় ॥ "স ভৈর্মরে যুনি মধুর বচনে । " কি হেতু কর ভ্রমণ কাননে ॥ বলে আমি পতি-বিরহিণী । * রালাম মম পতিমণি ॥ “ল নিরাজ আশ্বাস করিল। ** রিদিন তব দুঃখ শেষ হৈল ॥ বিক স্বামী পুনঃ পাবে রাজ্যভার । *ঠ সহ স্বখে বঞ্চিবে অপার । , "গ ঋষিবর অম্ভর্দ্ধান হৈল । ! 27 শরদিন্দুপ্রতীকশাং রক্তোস্তাষিতং কুণ্ডলং। ༠8༠ যাইতে যাইতে দেখে এক নদীকূলে । বহু দ্রব্য সঙ্গে ল’য়ে বহু লোক চলে ॥ ভৈমীকে দেখিয়া লোক বিস্ময় মানিল । বিপরীত দেখি কেহ ভয়ে পলাইল ॥ জিজ্ঞাসে দয়াদ্রে হয়ে তবে কোন জন । কে তুমি একাকী ভ্রম নির্জন কানন ॥ বৈদভী বলিল নহি পিশাচী রাক্ষসী । স্বামী তাম্বেfময় ভ্ৰমি তামি ত মাতৃষা ॥ অরণ্যের মধ্যে স্বামী ছাড়ি গেল মোরে । সত্য কহ তোমরা কি দেখিয়াছ তারে ॥ এতেক শুনিয়া বলে বণিকের গণ । তোম। ভিন্ন এ বনে না দেখি অন্যজন ॥ চেদীরাজ্যে যাব মোর। বাণিজ্য কারণ । আইস মোদের সঙ্গে যদি লয় মন ॥ তাখাস পাইয়। ভৈমী চলিল সংহতি । সেই পথে অন্বেযিয়া যায় নিজ পতি ॥ হেনমতে কত পথে এক রম্যস্থলে । এক গুটি সরোবর শোভিত কমলে ॥ শ্ৰমযুক্ত উত্তরেল বাণিজ্য কারণ । সেই নিশি তথায় বঞ্চিল সৰ্ব্বজন ॥ নিশাকালে হস্তীগণ জলপানে এল । নিদ্ৰিত আছিল পথে চরণে চাপিল ॥ দশনে চিরিল করে শুণ্ডে জড়াইল । বণিকগণের মধ্যে মহাগোল হৈল ॥ প্রাণভয়ে কোনদিকে ঘায় কোন জন । দময়ন্তা করিলেন বৃক্ষে আরোহণ ॥ রজনী প্রভাত হৈলে যে যেখানে ছিল . চারিদিক হৈতে আসি একত্র মিলিল ॥ ভয় পেয়ে তথা হৈতে যায় শীঘ্ৰগতি । কতদিনে চেদিরাজ্যে উক্তরিল সতী ॥ বিবর্ণবদন৷ কৃশ ভাঙ্গে অৰ্দ্ধবাস । ধূলিতে ধুসর কায় ঘন লছে শ্বাস ॥ বন হৈতে নগরেতে করিল প্রবেশ । চতুর্দিকে ধায় লোক দেখি তার বেশ । যুবা বৃদ্ধ নগরেতে যত নারীগণ । চতুর্দিকে বেড়িয়া চলয়ে সৰ্ব্বজন ॥