পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৩০১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সরত আয়ুধ কেহ ধরে দৈত্যগণ । ন অস্ত্র চতুর্দিকে করে বরিষণ ॥ ছন্দ্রে চড়িয়া ইন্দ্র বজ্ৰ লৈয়া হাতে । বগণ সহ যান বৃত্রকে মারিতে ॥ ঢু দেখি ঘোরনাদে গর্জে দৈত্যেশ্বর । gষ্ণুর নাদেতে কম্পিত চরাচর ॥ কাশ পাতাল যুড়ি মুখ মেলি ধায় । প্রিয় অমরপতি ভয়েতে পলায় ॥ বগণ সহ ইন্দ্র যান রডারড়ি । ছু পাছু দৈত্যগণ যায় তাড়াতাড়ি ॥ কাথায় পাইব রক্ষা করি অনুমান । কৃর সদনে গিয়া রাখিলেন প্রাণ ॥ sয়ার্ত দেখিয়া অশ্বিাসিয়া নারায়ণ । ংপায় চিন্তেন দৈত্যনিধন কারণ ॥ •লেন আপন তেজ হরি পুরন্দরে । বষ্ণুতেজ পেয়ে পুনঃ চলিল সমরে ॥ মন্য .দবগণে তেজ দিল ঋষিগণ । পুন বেত্ৰহিরেতে হইল মহারণ ॥ মইল অনেক যুদ্ধ লিখন না যায় । রিল বেত্রাস্বরে বজ্র দেবরায় ॥ <ঞ্জের ভাষণ শব্দ দৈত্যের গর্জন । ত্ৰৈলোক্যের লোক যত হৈল অচেতন ॥ বজাঘাতে অম্বরের মুণ্ড হৈল চুৰ্ণ । শর যত ছিল সব পলাইল তুর্ণ ॥ যতেক দানব দৈত্য কালকেয়গণ । প্ৰবেশিল সমুদ্র ভিতরে সর্বজন ॥ মহাভারতের কথা অমৃত সমান । ইবণে পরম স্থখ জন্মে দিব্যজ্ঞান ॥ শপম্য মুনির সমুদ্রপান এবং দেবগণের যুদ্ধে অমরদিগের নিধন । লোমশ বলেন শুন ধৰ্ম্মের নন্দন । শৰ্ম্মদ্রে আশ্রয় নিল কালকেয়ুগণ ॥ পৰ্যন্ত দিবস থাকে জলের ভিতর । রাজিতে উঠিয়া খায় ষত মুনিৰর । বশিষ্ঠাশ্রমে খাইল সপ্তশত ঋষি । তিন শত খাইল চব্যনাশ্রমে বসি ॥ ভরদ্বাজ আশ্রমে অনেক মুনি ছিল । রজনীর মধ্যে গিয়া সকলি পাইল ॥ উপায় না দেখি আর ব্যাকুল হইয়া । নারায়ণ স্থানে সবে জানাইল গিয় ॥ স্বষ্টিকৰ্ত্ত হর্তা তুমি, তুমি শ্ৰীনিবাস । তুমি উদ্ধারিবে সবে করিয়াছি আশ ॥ বেত্রীস্থর মৈল কিন্তু কালকেয়গণ । লক্ষিতে ন পারি তারা আইসে কখন ॥ এত শুনি রোযভরে কন পীতাম্বর । ইহার উপায় আর নাহি পুরন্দর ৷ বরুণ আশ্রিত হয়ে আছে দুষ্টগণ । সিন্ধু শুকাইতে সবে করহ যতন ॥ পাইয়া বিষ্ণুর আজ্ঞ। তবে দেবগণ । ব্রহ্মার সহিত গেল অগস্ত্য সদন ॥ দেবগণ তারে স্তুতি করে যোড়করে । সঙ্কটেতে তুমি রক্ষা কর বারে বারে ॥ নহুষের ভয়ে পূৰ্ব্বেব করিলা নিস্তfর । বিন্ধ্যভয়ে ক্ষিতির খণ্ডিলা অন্ধকার ॥ রাক্ষস বধিয়া বিনাশিল লোকভয় । এবারে করই রক্ষা হইয় সদয় ॥ ! এত শুনি চলিল অগস্ত্য যানবর । সঙ্গেতে চলিল সৰ্ব্ব অমর কিম্লর ॥ ! অগস্ত্য সমুদ্র পিবে অদ্ভূত কথন । দেখিতে চলিল যত ত্ৰৈলোক্যের জন ॥ বলিলেন সমুদ্র নিকটে তপোধন । তোমায় শুধিব আমি লোকের কারণ ॥ দেবত গন্ধৰ্ব্ব নাগ দেখিবে কৌতুক । নিমিষে সমুদ্র পান করিব চুম্বুক । তবেত অস্ত্য এক গধুষে তথন । ক্ষণমাত্রে সিন্ধুজল করিল শোধ৭ { হইল কুস্বমস্তুষ্টি মুনির উপরে । সাধু সাধু বলি শব্দ হৈল দিগন্তরে ॥ জলহীন সিন্ধু দেখি যত গেগণ । বে ঘাছার জন্ত্র ল’য়ে ধাইল তখন ।