পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৩১০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Տ)ԳՀ স্বশক্ত্য দক্ষহস্তেন ঘৃতচারু কলেবরং । [ মহাভারত । আসিয়া পাণ্ডব, পুষ্প নিল সব, কহে যুধিষ্ঠির, প্রাণ নহে স্থির, কহ গিয়া এই কথা ॥ যাবৎ না দেখি তারে ॥ ভীম মহাবল, তোলয়ে কমল, =m- "mamus না মানিল যদি মান । e ভীমান্বেষণের যুধিষ্ঠিরের যাত্ৰ । কুবের কিঙ্কর, হাতে ধনুঃশর, যুধিষ্ঠির বলে মুনি কর অবধান । রুষিল সকল সেন ॥ ভীমের বিলম্বে মম ব্যাকুলিত প্রাণ ॥ ভীমের উপর, সবে এড়ে শর, অস্ত্রশিক্ষা হেতু পার্থ স্বগেতে রহিল । বৃষ্টি হেন পড়ে কায়। মিথ্য। কার্য্যে পুষ্প হেতু ভামসেন গেল ॥ ক্ৰোধে বৃকোদর, উঠিয়া সত্বর, ব্যস্ত প্রাণ, না দেখিয়া দোহাকার মুখ । মারিল বৃক্ষের ঘায় ॥ বিধি দেয় দুঃখের উপর আরো দুঃখ ॥ মারিল যতেক, কহিব কতেক, এত বলি ঘটোৎকচে করে স্মরণ । - যে কিছু আছিল শেষ । স্মরণ করিবামাত্র ভামের নন্দন ॥ কান্দি উচ্চৈস্বরে, কহিল কুবেরে, আসিয়া সবার পদে করিল প্রণতি । ; নিশ্চয় মজিল দেশ ॥ আশীৰ্ব্বাদ করিয়া বলিল নরপতি ॥ র একজন, বিকৃতি লক্ষণ, ভাগ্যে আজি দেখিলাম বদন তোমার । মারিয়া রক্ষক কুল । মন দিয়া শুন বাপু কহি সমাচার । করিলেক হত, সরোবরে যত, পুষ্প হেতু গেল ভীম জনক তোমার । আছিল কমল ফুল ॥ চারিদিন না পাই তাহার সমাচার ॥ কহে নাম মোর, বীর বৃকোদর, . এই হেতু চিন্ত সদা হতেছে আমার । পাণ্ডু নৃপতির স্থত। ঘটোৎকচ এ সঙ্কটে করহ উদ্ধার ॥ গুন মহাশয়, কহিনু নিশ্চয়, প্রাণের অধিক মম বৃকোদর ভাই । যক্ষকুল হৈল হত ॥ শীঘ্ৰগতি চল তথা যাইব সবাই ॥ কহে যক্ষরাজ, দ্বন্দ্বে নাহি কাজ, আমারে লইবে আর ভাই দুইজন । তনয় অধিক হয় । সকল বর্ণের গুরু লইবে ব্রাহ্মণ ॥ श्रांभांज्ञ खेडब्र, কহিয়া সত্বর, দ্রুপদ-নন্দিনী কৃষ্ণ জননী তোমার । পুষ্প দেহ যত চায় । সে কারণে লইতে আমার অঙ্গাকার il মাসি চরগণে, মধুর বচনে, ঘটোৎকচ বলে দেব তোমার আজ্ঞায় । সাত্মাইল ভীমসেনে । পৃথিবী বহিতে পারি কত বড় দায় ॥ হথ ধৰ্ম্মস্থত, ত্ৰিবিধ উৎপাত, মম পৃষ্ঠে আরোহণ কর সর্বজনে । দেখয়ে শর্বর্বর দিনে ॥ তোমার প্রসাদে তথা যাইব এক্ষণে । উচাটন মতি মুনিগণ প্রতি, এত শুনি তুষ্ট হ’য়ে ধৰ্ম্মের নন্দন । করিলেন নিবেদন । প্রশংসা করিয়া বহু দেন আলিঙ্গন । কহ মুনিবর, ভাই, বৃকোদর, আরোহণ কৈল অগ্রে ব্রাহ্মণমণ্ডলী । না আইল কি কারণ ॥ কৃষ্ণা সহ তিন ভাই বসে কুতুহলী ॥ কয়, না করিহ ভয়, চলিল ভীমের পুত্ৰ ভীমপরাক্রম । ভীমে কে হিংসিতে পারে । অনায়াসে গমনে তিলেক নাহি শ্রম ॥