পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৩২০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


|95-R ত্ৰিভূবন তারিণি তরল তরঙ্গে ॥ [ ཕ་ཙ་རྩ་རྒྱ| সাজাইয়া সৰ্ব্ব সৈন্য দুঃশাসন বেগে। | বিনা ভাষ্ম দ্রোণ দ্রোণী কৃপাচার্য বাদ করযোড়ে দাণ্ডাইল নুপতির আগে ॥ সৰ্ব্ব সৈন্তে দুৰ্য্যোধন হইল বাহির । শুনিয়া কৌরবপতি উঠল সন্ত্রমে । বাহির হইয়া নিরীক্ষযে ক্রমে ক্রমে ॥ সমুদ্র লহরী যেন রথের পতাকা । মেঘের সদৃশ হস্তী নাহি যায় লেখা ॥ মনোহর মনোজ্ঞ উত্তম তুরঙ্গম । পৃথিবী আচ্ছাদি বীর বিশাল বিক্ৰম । সশস্ত্র সকল সৈন্য দেখিতে সুন্দর। শমন সভয় হয় কিবা ছার নর ॥ কর্ণ বলে বিলম্বে নাহিক প্রয়োজন । ভীষ্মদেব শুনিলে করিবে নিবারণ ॥ এই হেতু তিলেক বিলম্ব না যুয়ায় । দ্রুতগতি চল সথা এই অভিপ্রায় ॥ মথ রাঙল সৈন্যমাঝে যায় শীঘ্ৰগতি । কহিল মধুর ভাষে দুর্য্যোধন প্রতি ॥ শুনি তাত যাইবে প্রভাসতীর্থমানে । পুণ্যকার্যে বাধা নাহি দিই সে কারণে ॥ কুরুবংশে শ্রেষ্ঠ তুমি রাজ চক্রবর্তী । পরিল ভুবন তিন তোমার স্বকীৰ্ত্তি ॥ এ সময়ে যত কর ধৈর্য্য আচরণ । ভূষিত বৈভব হবে দ্বিগুণ শোভন । সবাকার মন মুগ্ধ প্রভাস গমনে । নিষেধ নাহিক করি আমি সে কারণে ॥ বিচিত্র গুচিত্র বন সুন্দর যে স্থল । দেবত গন্ধৰ্ব্বব তথা নিবসে সকল ॥ বহু সিদ্ধ ঋষিগণ উপনীত তথা । কণর সনে দ্বন্দ্ব নাহি করিব। সর্ববথা ॥ দুৰ্য্যোধন বলে তাত যে আজ্ঞ তোমার । যদি দ্বন্দ্ব করে তাতে কি ক্ষতি আমার ॥ মম সৈন্য দেথ তাত তোমার প্রসাদে । ইন্দ্র যম আসে যদি জিনিব বিবাদে u • তথাচ বিরোধে মম কোন প্রয়োজন । শীঘ্ৰ তুমি নিজ গৃহে করহ গমন ॥ বিছুরে মেলানি করি কৌরবের পতি । ন। করি বিলম্ব আর চলে শীঘ্ৰগতি ॥ চলিতে চরণভরে কম্পিত ধরণী । ধূল উড়ি আচ্ছাদিল দিনে দিনমণি ॥ সৈন্য-কোলাহল জিনি সাগর গর্জন । প্রমাদ গণিল সবে না বুঝি কারণ। মেঘের সদৃশ ধূলি গগনমণ্ডলে । বহুক্ষেত্র ভাঙ্গিয়া চলিল বহুস্থলে । ভারতপঙ্কজ রবি মহামুনি ব্যাস । ! পাঁচালী প্রবন্ধে বিরচিল কাশীদাস । হৰ্য্যোধনের সৈন্তের সহিত চিত্ৰসেন গন্ধৰ্ব্বেত্ব গ্র এইমতে রহে সৈন্য যুড়ি বহুস্থল। " গতায়াতে লণ্ডভণ্ড উদ্যান-সকল । হেনকালে দেখ তথা দৈবের ঘটrন ! গন্ধৰ্ব্ব উদ্যান এক ছিল সেই বনে ॥ চিত্ৰসেন নাম তার গন্ধৰ্ব্বপ্রধান । যার নামে হরাহ র সদা কম্পমান ॥ তাহার কিঙ্কর ছিল বনের রক্ষক । দেখিল উদ্যান ভাঙ্গে রাজার কটক । বহু সৈন্য দেখি এক না করি বিরোধ দুৰ্য্যোধন অগ্রে আলি কহিছে সংক্ৰাধ । শুন রাজা মম বাক্যে কর অবগতি । প্রভু মম চিত্ৰসেন গন্ধবের্বর পতি ॥ কুম্ম উদ্যান তার এই বনে ছিল । প্রবেশি তোমার সৈন্য সকল ভাঙ্গিল । বনের রক্ষক আমি কিঙ্কর র্তাহার । না করিলে ভাল কৰ্ম্ম কি কহিব অfর } এই কথা মম মুখে পাইলে সম্বাদ । আসিয়া ইঙ্গিতে রাজা করিবে প্রমাদ ! এত শুনি মহাক্রোধে কহে বর কর্ণ ! বিকচ কমল প্রায় চক্ষু রক্তবর্ণ ॥ ওরে দুষ্ট করিস কাহার অহঙ্কার । কোন ছার গন্ধৰ্ব্ব এতেক গৰ্ব্ব তার : যে কথা কহিলি তুই আসি মম কাছে এতক্ষণ জীয়ে রহে হেন কেব৷ আছে ।