পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৩৪৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৪০৬ গঙ্গাস্তব-মিম-মমলং নিত্যং। পঠতি নরো যঃ স জয়তি সত্যং । [ মহাভারত। জয়-বিজয়ের অভিশাপ ও হিরণ্যক্ষ, হিরণ্যকশিপুর জন্ম এবং হিরণ্যাক্ষ বধ । ইহা কহিলেন যদি ধৰ্ম্মের নন্দন । কৃপাবশে কহিতে লাগিল তপোধন ॥ শুন যুধিষ্ঠির ধৰ্ম্মস্থত নৃপমণি। পূর্বের বৃত্তান্ত এই অপূৰ্ব্ব কাহিনী ॥ যবে সত্যযুগ আসি করিল প্রবেশ । বৈকুণ্ঠে ছিলেন প্ৰভু দেব হৃষীকেশ ॥ দ্বার রক্ষা হেতু ছিল উভয় কিঙ্কর । জ্যেষ্ঠ জয়, বিজয় কনিষ্ঠ সহোদর ॥ ব্রাহ্মণের দ্বার রোধ নহে কদাচন । একদিন দেখ রাজা দৈবের ঘটন ॥ ব্রাহ্মণ যাইতেছিল কৃষ্ণ সম্ভাষণে । বেত্ৰ দিয়া দ্বারেতে রাখিল দুইজনে ॥ দোহাকার কৰ্ম্ম দেখি দ্বিজের সন্তাপ । পৃথিবীতে জন্ম দোহে দিল এই শাপ ॥ বজতুল্য দ্বিজবাক্য শুনি দুইজন । ঃখিত চলিল ঘগ্ন প্রভু নারায়ণ ॥ কহিল শাপের কথা করিয়া বিশেষ । কহিলেন শুনি তবে দেব হৃষিকেশ ॥ আমা হৈতে শতগুণে শ্রেষ্ঠ দ্বিজবর । হইল তাহার মুখে অলঙ্ঘ্য উত্তর ॥ " কাহার শকতি তাহা করিতে হেলন । ক্ষিতিমধ্যে অবশ্য জন্মিবে দুইজন ॥ শুনিয়া শিষ্ঠর কথা ঈশ্বরের মুখে । জিজ্ঞাসা করিল দোহে অতিশয় দুঃখে ॥ আজ্ঞা কর শীঘ্ৰ পাই যাহাতে তোমায়। . কতকাল থাকিব ছাড়িয়া তব পায় ॥ গোবিন্দ বলেন জন্ম লহ মর্ত্যলোকে । কহি এক উপযুক্ত উপায় দোহাকে ॥ মিত্রভাব আমাকে জানিবা তুমি যদি । ভ্রমণ করিবে সপ্ত জনম অবধি । শত্রুরূপে হিংস যদি করহ আমার । গর্তের যন্ত্রণ মাত্র তিন জন্ম সার ॥ চিন্তা না করিও কিছু আমার হিংসনে । আমিও জন্মিব গিয়া ভক্তের কারণে ॥ --~ যদি দোহে জনম লইবা বারে বারে । ! শাপান্ত করিব আমি তিন অবতারে । ! হেনকালে আশ্চৰ্য্য শুনহ অঙ্গর কথা । দক্ষের নন্দিনী দিতি কশুপবনিত ॥ পুত্ৰকাম্য করি গেল স্বামীর গোচর । সায়ংসন্ধ্যা করিবারে যায় মুনিবর ॥ দিতি বলে পশ্চাৎ করিব সন্ধা! তুমি । আজ্ঞা কর পুত্ৰকাম্যে আইলাম আদি। মুনি বলে হৈল এই রাক্ষসী সময়। ইথে পুত্র জন্ম হ’লে কতু ভাল নয় ॥ দিতি বলে মুনিরাজ নহিলে না হয় । মানস করহ পুর্ণ জন্মাও তনয় ॥ হেনমতে এ কথা কহেন যদি দিতি । পুত্রবর দিয়া মুনি কহে দুঃখমতি ॥ মুনি বলে না শুনিবে আমার বচন । হুইবে অবশ্য তব যুগল নন্দন ॥ মহাবল পরাক্রম আমার ঔরসে । কিন্তু তারা দুষ্ট হবে সময়ের দোনে ॥ ধৰ্ম্মপথ-বিরোধী জিনিবে ত্রিভুবন । দেখিয়া দেবের দুঃখ প্রভু নারায়ণ ॥ অবতরি নিজ হস্তে বধিবে দোহাকে । তুমিও পরম দুঃখ পাবে পুত্ৰশোকে ॥ এতেক বলিলে মুনি ভবিষ্য উত্তর । নিজালয়ে গেল দিতি দুঃখিত অন্তর li মুনির ঔরসে রাজা দিতির গর্ভেতে । জয়-বিজয়ের জন্ম হৈল হেনমতে ॥ যথা কালে প্রসব হইয়। দক্ষিণয়ণী । প্রত্যক্ষ হইল যত মুনির কাহিনী ॥ জন্মকালে হুইল তবে বিবিধ উৎপাত । ধরণী কপিল শবেদ সঘনে নির্ঘা ত ॥ প্রাতঃকালে হৈতে যেন বাড়ে দিনকর । জন্মমাত্র হৈল মত্ত মহাবলধর ॥ হিরণ্যাক্ষ হিরণ্যকশিপু দুইজন । ধৰ্ম্মপথ বিরোধিতে করিলেক মন । যজ্ঞ নষ্ট করিয়া হিংসিল দেবগণে । ইন্দ্রপদ লইয়া বসিল সিংহাসনে ॥