পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৩৫১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


--------------س--سیاسی বনপৰ্ব্ব । ) বাস্থদেবের ধ্যান—ও বিষ্ণুং শারদচন্দ্রকোটি সদৃশং শঙ্খং রথাঙ্গং । ৪১৩ মেহদিনে তুষ্ট মনে বসি নৃপমণি । z-ক একে প্রসব হইল তিন রাণী ॥ কৌশল্যার গর্ভে জন্ম নিলেন শ্রীরাম । অবতার মূৰ্ত্তি দুৰ্ব্বাদলশ্বাম ॥ ছিন্তীয় কৈকেয়ী-গর্ভে জন্মিল ভরত । ন ভুবনে যার অতুল মহত্ব ॥ লক্ষণ নামেতে জ্যেষ্ঠ স্থমিত্রার স্থত। দ্বিতীয় শত্রুঘ্ন সৰ্ব্ব লক্ষণ সংযুত ॥ হনমতে হইল বিষ্ণুর অবতার । উল্লসিত অবনী আনন্দ সবাকণর ॥ দিনে দিনে বাড়িলেক যেন শশধর । অস্ত্রশস্ত্র বিশারদ দেখিতে সুন্দর ॥ সিথিলার ঈশ্বর জনক নাম ঋষি । বহুদিন লাঙ্গলেতে যজ্ঞভূমি চষি ॥ তপয় জন্মিল লক্ষী অযোনিসম্ভব । পাইল লাঙ্গলমুখে পরম দুল্লাভা ॥ জন্ম অনুরূপ নাম রাখিলেন সীতা । কন্যর পালনে রাণী রহিলা সুস্থিত ॥ এদিকে কারণ জানি যাবতীয় দেবে। সঙ্গোপনে শিবধনু রাখিলেন সবে ॥ জনকেরে কহিল অমরগণ ডাকি । লক্ষা’র সমান এই তোমার জানকী ॥ 25জয় ধনুক ভাঙ্গিবেক যেইজন । হারে জানকী দিবে কর এই পণ । রাপে রাজঋষি প্রতিজ্ঞা করিল। পত্ৰ দিয়া পৃথিবীর নৃপতি আনিল ॥ পত্নক দেখিয়া সবে ডরে পলাইল । ইষ্ট টারি পরাভবে কেহ না আইল ॥ নিরপে বিবাহ করিলেন রঘুবীর । শুনহ পূর্বের কথা রাজা যুধিষ্ঠিয় ॥ রবণের অনুচর রাক্ষস রাক্ষসী । 'স আরম্ভিলে মুনি, নষ্ট করে আসি ॥ বস্থরক্ষা কারণ বিধান করি মনে । Bখামিত্র মুনি গেল দশরথ-স্থানে ॥ সুনি দেখি পূজি রাজা আনন্দিত মন । জিজ্ঞাপিল এ স্থানে কি হেতু আগমন ॥ سیاسی مستحصحیح---- کي 零、 £.で売。f 5 乞 ټ:ى 苓° | i | i | | মুনি বলিলেন যজ্ঞ নাশে, নিশাচরে । শ্রীরাম লক্ষমণে দেহ যজ্ঞ রাখিবারে ॥ শুনি রাজা বিচারিল পাছে দেন শাপ । শ্রীরাম লক্ষণ গেলে হইবে সন্তাপ ॥ দুই মতে বিপরীত বুঝিয়। রাজন। শ্রীরাম লক্ষণে করিলেন সমপণ ॥ দোহা সঙ্গে করি মুনি যান হরবিতে । হেনকালে তাড়কা সহিত দেখা পথে ॥ যেমন উদয় ঘোর কাদম্বিনী মাল । গলে মুণ্ডমালা পরিধান বাঘছাল ॥ দেখিয়া রাক্ষসী-মৃত্তি ভাত মহাঋষি । নির্ভয় করিয়া রাম মারেন রাক্ষসী ॥ তবে দোহে ল’য়ে গেল যজ্ঞের সদন । শ্রীরামেরে কছিল সকল বিবরণ ॥ শুন রাম সৰ্ব্বদ না থাকে হেথা দুষ্ট । আরম্ভ করিলে যজ্ঞ আসি করে নষ্ট ॥ যজ্ঞধূম দেখিলে করয়ে রক্তবৃষ্টি । কোথায় থাকায়ে কার নাহি চলে দৃষ্টি ॥ ক্রীরাম কহেন সবে হইয়া নির্ভয় । যজ্ঞ কর আহক রাক্ষস তুরাশয় ॥ এতেক শুনিয়া মুনিগণ মহাসুখে । আরম্ভ করিল যজ্ঞ মনের কৌতুকে ॥ হেনকালে গগনে দেখিয়া ধূমচয়। আইল মারাচ দুষ্ট জানিয়া সময় ॥ মেঘেতে আচ্ছন্ন কৈল রক্ষসের মায়া । যজ্ঞভূমে আসিয়া লাগিল তার ছায় ॥ দেখিয়া সকল মুনি ক্রীরামরে কয় । ঐ দেখ আইল ঘ র্যক্ষস তুরাশয় ॥ কেfদণ্ডপণ্ডিত রস দেখিয়া নয়নে । যুড়েন ঐধিক গণ পলুকের গুণে ॥ মহীশব্দ করি বাণ অগ্নি হেন জ্বলে । গৰ্জ্জিয়া উঠিল বাণ গগনমণ্ডলে ॥ পলাইল নিশাচর রণে করি শঙ্কা । লুকাইয়া রহে ত্ৰাসে প্রবেশিয়া লঙ্কা ॥ নিরাপদে যজ্ঞ করে যত মুনিগণে । আশীৰ্ব্বাদ করিল শ্রীরাম লক্ষণে ॥